সোমবার, এপ্রিল ২৪, ২০১৭
bodrum escort escort bodrum
UCC-LOGO1

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়: প্রভাষক নিয়োগে অনিয়ম?

JU

জাবিঃ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্প্রতি পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শিক্ষকদের একটি অংশ বলছে, নিয়োগে অধিকতর যোগ্য প্রার্থীদের বাদ দেওয়া হয়েছে। বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ অভিযোগ করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে বিকেল তিনটার দিকে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মো. শফিকুল ইসলাম। এতে বলা হয়, গত ১ নভেম্বর পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক নিয়োগে অধিকতর যোগ্য ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে কাজী গোলাম মর্তুজা নামের একজনকে নিয়োগের সুপারিশ করে নিয়োগ বোর্ড। গোলাম মর্তুজার স্নাতকের (সম্মান) ফল সিজিপিএ ৩ দশমিক৬২। কিন্তু তাঁর থেকে অধিকতর যোগ্যতাসম্পন্ন অন্তত ১০ জন প্রার্থী ছিলেন। তাঁদের মধ্যে অন্তত তিনজনের ফল সিজিপিএ ৩ দশমিক ৭০। তাই এই সুপারিশ পুনর্বিবেচনার জন্য বিভাগীয় সভাপতি মো. আবদুল মান্নান চৌধুরীকে চিঠি দেওয়া হয়েছিল। একই দাবিতে গত ৫ নভেম্বর উপাচার্যকেও চিঠি দেওয়া হয়। কিন্তু তারপরও ১০ ডিসেম্বর সিন্ডিকেট সভায় দ্বিতীয় সারির এই প্রার্থীকে প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সরকার ও রাজনীতি বিভাগের শিক্ষক নাসিম আখতার হোসাইন বলেন, নিয়োগ নিয়ে প্রশ্ন উঠলে বলা হয় প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষায় ভালো করেছেন। আসলে পছন্দের প্রার্থীকে মৌখিক পরীক্ষায় সুবিধা দেওয়া হয়। আর বাদ দেওয়ার জন্য অন্যদের হয়রানি করা হয়। পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক এ এ মামুন বলেন, নিজেদের প্রার্থীকে নিয়োগের জন্য সুবিধামতো বহিঃশিক্ষক দিয়ে বোর্ড গঠন করা হয়। স্বচ্ছ নিয়োগের জন্য নিয়োগপদ্ধতি বদলানো প্রয়োজন। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক এ টি এম আতিকুর রহমান, দর্শন বিভাগের শিক্ষক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া প্রমুখ।

উপাচার্য ফারজানা ইসলাম বলেন, ‘আমি শিক্ষকদের চিঠি দেখেছি। সেখানে একজনের যোগ্যতা হিসেবে জিআরই নম্বর উল্লেখ করা হয়েছে। শিক্ষক নিয়োগে জিআরই কোনো যোগ্যতা হতে পারে না। বিশেষজ্ঞদের সুপারিশ এবং পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে এ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।’— প্রথমআলো

এমএসএল