ক্ষোভ ও শোকের বুয়েটে আজ ভর্তি পরীক্ষা


Buet
Published: 2019-10-14 08:52:33 BdST | Updated: 2019-12-07 15:50:44 BdST

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হাতে তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ নিহত হওয়ার পর ক্ষোভ ও শোকাবহ বুয়েটে আজ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এ উপলক্ষে সার্বিক প্রস্তুতি শেষ করেছে বুয়েট প্রশাসন। ক্যাম্পাসের নিরাপত্তায় যান চলাচলে বিধিনিষেধ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বাড়তি সদস্য মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

প্রস্তুতির বিষয়ে বুয়েট ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. প্রাণ কানাই সাহা যুগান্তরকে বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় ১২ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী অংশ নেবে। অন্যান্য বছরের মতো এবারও আমরা ভর্তি প্রস্তুতির সব পদক্ষেপ শেষ করে এনেছি।

‘ক্যাম্পাসের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করেছে বুয়েটের নিরাপত্তা সংক্রান্ত কমিটি। তারা ক্যাম্পাসে সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিচ্ছে।’

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শিথিল করায় আশা করছি সুন্দর পরিবেশে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে শনিবার ভর্তি পরীক্ষা সামনে রেখে দুই দিন আন্দোলন শিথিলের ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা। তারা জানান, রোববার ও আজ আন্দোলন কর্মসূচি শিথিল থাকবে। বুয়েট প্রশাসন আন্দোলনকারীদের ৫ দফা দাবি মেনে নিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করায় তারা আন্দোলন শিথিল করার ঘোষণা দেন।

ওই সময়ে আন্দোলনকারীরা বলেন, বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা নির্বিঘ্নে হোক তা আমরা চাই। পরীক্ষা বানচালের দায় আমরা নিতে চাই না।

সরেজমিন রোববার বুয়েট ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা গেছে, দিনভর শান্ত ছিল ক্যাম্পাস। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ও কোলাহল ছিল না। তবে আন্দোলনকারী কিছুসংখ্যক শিক্ষার্থীকে জট পাকিয়ে আড্ডা দিতে দেখা গেছে। আরেক দল ব্যস্ত ছিল দেয়াল গ্রাফিতি আঁকায়।

বুয়েটের প্রধান গেট থেকে পলাশী পর্যন্ত হল সংলগ্ন দেয়ালের এক পিলার থেকে আরেক পিলার পর্যন্ত আঁকা হয়েছে বিভিন্ন ছবি। কোথাও কোথাও রক্তাক্ত আবরারের ছবি এঁকে নির্যাতন বন্ধের দাবি জানানো হয়েছে। কোথাও প্রতীকী ছবিতে নির্যাতনের ভয়ংকর ছবিও আঁকা হয়।

কচ্ছপের একটি ছবি এঁকে তাতে ‘বিচার’ শব্দ বসিয়ে দেয়া হয়েছে। আবরারের বাবার ছবি এঁকে লেখা হয়েছে- ‘পারবেন আমার ছেলেকে ফিরিয়ে দিতে’। এছাড়া বুয়েটে প্রবেশপথের দুটি দেয়ালেও আঁকা হয়েছে বিভিন্ন ছবি।

বুয়েটের গেটে আবরারের ছবি দিয়ে প্লাকার্ড টানানো হয়। আরেকটিতে ‘সরি মা’ লিখে আবরারের মায়ের প্রতিচ্ছবি দেয়া হয়েছে। বুয়েটের ভেতরে আগের দিনের মতো রয়েছে আবরার হত্যার বর্ণনা সংবলিত ছবি।

এসব প্রতিবাদী গ্রাফিতি প্রসঙ্গে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী অন্তরা মাধুরী তিথি যুগান্তরকে বলেন, বুয়েটে ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে আন্দোলন শিথিল করেছি। তবে গ্রাফিতির মাধ্যমে বুঝিয়ে দিচ্ছি নীরব প্রতিবাদ চলছে।

তিনি বলেন, ভর্তি পরীক্ষার সময় আমরা বুয়েটের গেটের বাইরে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে অবস্থান নেব। শিক্ষার্থীদের আসন খুঁজে দিতে তাদের সহযোগিতা করব। এছাড়া আগত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আমাদের উদ্যোগে পানি ও খাবার সরবরাহ করব।

আরেক আন্দোলনকারী আবদুল্লাহ আল আজওয়াদ বলেন, মোট ২৩টি দেয়ালে চিত্রাঙ্কন করা হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে আজ বুয়েটে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা আসবেন। তারাও এসব ছবি দেখে বুঝতে পারবেন কীভাবে শিক্ষার্থী নির্যাতন করা হয়।

তারাও শিক্ষাঙ্গনে নির্যাতনের প্রতিবাদে সোচ্চার হবেন- এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা। বুয়েট ক্যাম্পাস ঘুরে আরও দেখা গেছে, ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে আসনবিন্যাসের তালিকা টানিয়ে দেয়া হয়েছে। কোন পরীক্ষার হল কোথায় অবস্থিত, সেই মার্কিংও দিয়েছে বুয়েট প্রশাসন।