মাসুদা ভাট্টিকে অশালীন মন্তব্যের প্রতিবাদে ঢাবিতে মানববন্ধন


ঢাবি টাইমস
Published: 2018-10-23 10:09:43 BdST | Updated: 2018-12-12 01:17:34 BdST

সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি সম্পর্কে ঐক্যফ্রন্ট নেতা ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের ‘কুরুচিপূর্ণ’ বক্তব্যের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মানববন্ধন করেছে।

আজ মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এই মানববন্ধন হয়। মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক জিনাত হুদার সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপত এ এস এম মাকসুদ কামাল, সাধারণ সম্পাদক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম, ঢাবি শিক্ষক অধ্যাপক বজলুল হক খন্দকার, অধ্যাপক নিজামুল হক ভূইয়া, অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার, ঢাবি কর্মকর্তা শিউলী আফসার প্রমুখ।

অধ্যাপক মাকসুদ কামাল বলেন, সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে মঈনুল হোসেন সমস্ত নারী জাতিকে অপমান করেছেন। এর মাধ্যমে তার কুৎসিত মনোজগতের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। এর আগেও অসংবাধিক সরকারের উপদেষ্টা থাকাকালে তিনি ঢাবি শিক্ষকদের অপমান করেছিলেন। তার এসব কর্মকাণ্ডে মধ্যযুগের মনোভাব ফুটে উঠেছে। আর তিনিই হচ্ছেন এখন ঐক্যফ্রন্টের নেতা।

ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সাবধান করে অধ্যাপক মাকসুদ কামাল বলেন, আপনাদের আরেক নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না দেশকে অস্থিতিশীল করতে ঢাবিতে লাশ ফেলার কথা বলেছিলেন। আপনাদের মনোভাব জনগণ বুঝে গেছে। ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় যাওয়ার দুরভিসন্ধী করবেন না। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার নাম করে দেশে বিরাজমান গণতন্ত্রকে ধ্বংস করবেন না।

ঐক্যফ্রন্টকে নারীবিরোধী ফ্রন্ট অভিহিত করে সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক জিনাত হুদা বলেন, এটি একাধারে স্বাধীনতা ও রাষ্ট্রবিরোধী ফ্রন্ট। এই ফ্রন্টের নেতা মঈনুল হোসেনের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের সম্পর্ক আছে, খন্দাকার মোশতাকের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে তিনি দল গঠন করেছিলেন। তিনি সব সময় আমাদের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন। আপনারা তারা যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে লাশ ফেলার পরিকল্পনা করেন। কিন্তু ষড়যন্ত্র করে আপনার নারী ও দেশের অগ্রযাত্রা বন্ধ করতে পারবেন না।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।