ভিকারুননিসার গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়ার সুপারিশ তদন্ত কমিটির


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-12-05 21:09:56 BdST | Updated: 2018-12-12 03:33:53 BdST

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়ার সুপারিশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) গঠন করা তদন্ত কমিটি। একইসঙ্গে নতুন কমিটি গঠনেরও সুপারিশ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে। বুধবার (৫ নভেম্বর) মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনে এ সুপারিশ করা হয়। এদিকে ছাত্রীরাও গভর্নিং বডির সকলের একযোগে পদত্যাগ দাবী করেছে। 

সোমবার (৩ ডিসেম্বর) নকল করার অভিযোগ তুলে নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারী ও তার বাবা-মাকে অপমানসহ ভয়ভীতি দেখানোর পর অরিত্রী অধিকারী আত্মহত্যা করেন। এই ঘটনায় শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানটির প্রধান ফটকের সামনে বিক্ষোভ শুরু করে। পরদিন মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের নির্দেশে মাউশি একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে।

মাউশির ঢাকা অঞ্চলের পরিচালক অধ্যাপক মো. ইউসুফের নেতৃত্বে তিন সদস্যের এই তদন্ত কমিটি বুধবার সকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন দাখিল করে।

মন্ত্রণালয়ে দাখিল করা ওই তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনা গুরুত্বের সঙ্গে দেখেনি গভর্নিং বডি। পরিস্থিতিকে ভিন্নখাতে নেওয়ার জন্য সময়ক্ষেপণ করেছে তারা। আত্মহত্যাকে জনশ্রুতি বলে উপহাস করা হয়েছে। সামগ্রিক পরিস্থিতি অনুযায়ী অভিযুক্তদের বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়েছে। এ পরিস্থিতে প্রতিষ্ঠানটির গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়ার সুপারিশ করেছে তদন্ত কমিটি।

তদন্ত কমিটির দেওয়া প্রতিবেদনের ভিত্তিতে অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় প্ররোচনার দায়ে শিক্ষামন্ত্রী বুধবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদাউস, ভিকারুননিসার বেইলি রোড ক্যাম্পাসের প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আক্তার ও শিক্ষক হাসনে হেনাকে বরখাস্তের নির্দেশ দেন। এছাড়া আইনি ব্যবস্থা ও এমপিও (মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার) বন্ধ করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশের পর ঢাকা শিক্ষা বোর্ড গভর্নিং বডিকে ৬ ডিসেম্বরের মধ্যে বরখাস্তসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেয়। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ওই আদেশে বলা হয়, গভর্নিং বডি সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা, প্রশাসনিক ব্যবস্থা তদারকি, শৃঙ্খলা বজায় রাখা, রক্ষাণাবেক্ষণ সংক্রান্ত কাজের দায়িত্ব পালন করে। কিন্তু ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও শিক্ষকদের বিরূপ আচরণ, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি সংক্রান্ত অনিয়ম, স্যানিটেশন সমস্যার বিষয়ে বিস্তর অভিযোগ রয়েছে অভিভাবকদের। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৩ ডিসেম্বর অরিত্রী অধিকারীর আত্মহননের মতো হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনা গভর্নিং বডির দায়িত্বে অবহেলার পরিচয় বহন করে।

এদিকে, অরিত্রীর আত্মত্যার ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়াসহ ছয় দফা দাবি উত্থাপন করে শিক্ষার্থীরা।

গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘যদি নির্দেশ না মানে, প্রতিষ্ঠান চালাতে না পারে, তাহলে আমরা গভর্নিং বডি ভেঙে দেবো। গভর্নিং বডির সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বসবো।’

তদন্ত প্রতিবেদনে গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়ার সুপারিশের বিষয়ে জানতে চাইলে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি গোলাম আশরাফ তালুকদার বলেন, ‘মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ড যেভাবে নির্দেশ দিয়েছে, সেভাবেই ব্যবস্থা নিয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘এরপরও যদি শিক্ষা বোর্ড মনে করে গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়া দরকার, তাহলে ভেঙে দেবে।’ এতে তার কিছু বলার নেই বলেও ‍তিনি মন্তব্য করেনে।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।