বদলে গেল 'কফি হাউজের সেই আড্ডাটা' গান গাওয়া জহুরুলের জীবন


Dhaka
Published: 2019-10-16 23:53:28 BdST | Updated: 2019-11-14 16:06:59 BdST

কিংবদন্তী মান্না দে’র ‘কফি হাউজের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই’ গান গেয়ে অনলাইলে ভাইরাল সেই রিকশাচালক জহুরুল বেসরকারি একটি কোম্পানিতে চাকরি পেয়েছেন। বাংলাদেশ চায়না পাওয়ার কোম্পানি (প্রা:) লিমিটেডে অফিস সহকারি পদে যোগ দিয়েছেন তিনি।

১৬ অক্টোবর( বুধবার) জহুরুল ইসলাম বলেন, তিন -চারদিন হলো যোগ দিয়েছি। আমাকে সিকিউরিটি গার্ড পোস্টে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু স্যাররা আমাকে অফিসের কাজই করাচ্ছেন। ভাল লাগছে অনেক। একটা অন্যরকম জীবন পেয়েছি। দিন হিসেবে এখানে আমাকে টাকা দেওয়া হবে। যার পরিমাণটাও ভালো।

জহিরুল জানান, হাজারীবাগের বটতলার বালুর মাঠের সেই এলাহী গ্যারেজ ছেড়ে এখন তিনি শুক্রাবাদের একটি মেসে উঠেছেন। কিন্তু এলাহী গ্যারেজের মানুষগুলোকে খুব মিস করছেন। আসছে শুক্রবার তাদের সঙ্গে দেখা করতে যাবেন জহুরুল।

জহুরুল বলেন, কারওয়ান বাজারের ইউটিসি ভবনে আমার অফিস। আমার ছুটি হয় সন্ধ্যা ছটায়। সামনের সপ্তাহ থেকে গানের ক্লাসে যাব। এক স্যার ঠিক করে দিয়েছেন একজন ওস্তাদের কাছে গান শুরু করব।

নতুন অফিসের সবাই কি আপনার গানের কথা জানেন? এমন প্রশ্নের জবাবে জহুরুল বলেন, হ্যাঁ -এই গানের কারণেই তো আমি এখানে চাকরি পেয়েছে। অফিসের স্যাররা অবসরে গান শুনতে চান আমার কাছে।

জহিরুল বলেন, আমার এলাকার (সিরাজগঞ্জের) এক বড় ভাই এই চাকরিটা দিয়েছেন। আমি যেন গানের সুযো্গ পাই বা গান চালিয়ে নিতে পারি সেজন্য অনেকেই সহযোগিতা করতে চেয়েছেন। নিজেকে খুব ভাগ্যবান বলে মনে হচ্ছে।

গত ১ অক্টোবর রাতে রিকশাচালক জহিরুল হঠাৎ করেই আলোচনায় উঠে আসেন। সেদিন দরাজ গলায় কিংবদন্তী মান্না দে’র ‘কফি হাউজের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই’ গানের একটি ভিডিও ফেসবুকে পোস্ট করেন এস এম সুজা উদ্দিন নামে একজন। জহুরুলের দরাজ কণ্ঠ আর চমৎকার গায়কী সেই ভিডিওকে ফেসবুকে ভাইরাল হয়। প্রথম দুই দিনেই প্রায় সাড়ে আট লাখ বার দেখা হয় সেই ভিডিও। অনলাইনে ভাইরাল রিকশাচালক জহুরুল রীতিমতো ‘ফেসবুক সেলিব্রেটি’তে পরিণত হন। তার ডাক পড়তে থাকে পত্রিকা অফিস, টিভি চ্যানেলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে। দেশ ছাড়িয়ে বিদেশী গণমাধ্যমেও জায়গা পায় শিল্পী জহিরুলের জীবনের গল্প।