বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর লেখা একযোগে পড়বে কোটি শিক্ষার্থী


Dhaka
Published: 2020-02-24 18:47:49 BdST | Updated: 2020-04-01 13:59:23 BdST

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিখবেন একটি বিশেষ লেখা। বঙ্গবন্ধুর জীবন ও সংগ্রামের ওপর শিশুতোষ এই লেখা আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে পাঠ করবে সারাদেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়পড়ূয়া ১ কোটি ৪০ লাখ শিশু।

আগামী ১৭ মার্চ থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উদযাপন শুরু হচ্ছে। এ উপলক্ষে ওই দিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে সারাদেশের ৬৫ হাজার ৬২০ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একযোগে এই লেখার পাঠ আয়োজন করা হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এ উদ্যোগ নিয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম আল হোসেন সমকালকে বলেন, জাতির পিতার জীবন ও সংগ্রামের তথ্যগুলো জানার মধ্য দিয়ে সারাদেশের প্রায় দেড় কোটি শিশুর মধ্যে দেশপ্রেম ও স্বাধীনতার চেতনা জাগ্রত করা এ আয়োজনের উদ্দেশ্য। আজকের শিশুরাই ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ গড়ার মূল কারিগর। তাই তাদের উজ্জীবিত করার জন্যই এ উদ্যোগ।

জানা গেছে, গত ১০ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে অনানুষ্ঠানিক আলোচনা করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন ও মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম আল হোসেন। প্রধানমন্ত্রী এ প্রস্তাবে সম্মতি দেন।

সচিব আকরাম আল হোসেন জানান, কেবল এই লেখা পাঠই নয়; বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় একাধিক উদ্যোগ নিয়ে তা বাস্তবায়ন করছে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়পডুয়া শিশুরা যেন শুদ্ধভাবে বাংলা ও ইংরেজি পড়তে পারে, সেটি সরকারের লক্ষ্য। আগামী ৩০ জুনের মধ্যে সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৭০ শতাংশ শিশু সাবলীলভাবে বাংলা ও ইংরেজি রিডিং পড়তে পারবে। আর মুজিববর্ষের মধ্যে সারাদেশের শতভাগ শিশুই তা পারবে। এর বাইরে 'ওয়ান ডে, ওয়ান ওয়ার্ড' কর্মসূচির আওতায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব শিশুকে প্রতিদিন একটি বাংলা ও একটি ইংরেজি শব্দ শেখানো হচ্ছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব বলেন, মুজিববর্ষে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে শিক্ষাসহায়ক উপকরণ হিসেবে স্কুল ড্রেস, জুতা ও ব্যাগ কেনার জন্য ৫০০ টাকা করে দেবে সরকার। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মুজিববর্ষে এটা শিক্ষার্থীদের জন্য উপহার। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রতি মাসে ১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৫০ টাকা করা হতে পারে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৭ মার্চ মুজিববর্ষের শুরুতেই সারাদেশের প্রায় এক কোটি ৪০ লাখ প্রাথমিক শিক্ষার্থীর মায়েদের কাছে নতুন পোশাকের জন্য টাকা দেওয়া হবে। এ জন্য এখন থেকেই মন্ত্রণালয় প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন  বলেন, শিক্ষার্থীদের মানসিকভাবে প্রফুল্ল রাখতে সরকার সচেষ্ট। সে কারণে প্রতি বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে পাঠ্যবই ও উপবৃত্তির টাকা দেওয়া হয়। এর বাইরে এবার মুজিববর্ষে শিক্ষা উপকরণ কেনার জন্য এককালীন ৫০০ টাকা করে দেওয়া হবে। এ জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।