এসএসসির ফল প্রকাশের পর ১০ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা


Dhaka
Published: 2020-06-01 08:21:29 BdST | Updated: 2020-07-05 06:26:50 BdST

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল রবিবার (৩১ মে) প্রকাশিত হয়েছে। এবার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে, যাদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ জন। কাঙ্ক্ষিত এ ফল পেয়ে অনেকে খুশিতে আত্মহারা হয়েছে। পরিবার-পরিজনদের নিয়ে আনন্দ ভাগাভাগি করছেন তারা। পাশাপাশি অকৃতকার্য কিংবা কাঙ্ক্ষিত গ্রেড না পাওয়ায় স্বপ্ন ভঙ্গও হয়েছে অনেকের।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, এ পরীক্ষায় অকৃতকার্য এবং জিপিএ-৫ না পাওয়ায় শরীয়তপুর, সিরাজগঞ্জ, লালমনিরহাট, গাজীপুর, ঝিনাইদহ, হবিগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও, ফরিদপুর, দিনাজপুর এবং জয়পুরহাটে মোট ১০ জন কিশোর-কিশোরী আত্মহত্যা করেছে।

জিপিএ-৫ না পেয়ে মোতাসির রহমান বর্ষা নামের এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। তিনি শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলা ইদুলপুর ইউনিনের বটনা গ্রামের মতিউর রহমান সরকারের মেয়ে। সে এবার ইদুলপুর হাই স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অংশগ্রহণ করে। রবিবার (৩১ মে) দুপুর ১টার দিকে নিজ ঘরের ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক এমদাদুল হক বলেন, বর্ষা পড়ালেখায় বেশ ভালো ছিল। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল সে। রবিবার প্রকাশিত এসএসসি ফলাফলে দেখা যায়, বর্ষা তিনটি বিষয়ে ৭৮ নম্বর পায়। আর সবগুলো বিষয়ে ৮০ ওপর নম্বর পেয়েছে। অল্পের জন্য জিপিএ-৫ পায়নি সে। তাই শুনলাম আত্মহত্যা করেছে।

পরীক্ষায় ফেল করায় অভিমান করে গলায় রশি পেঁচিয়ে মাফিয়া খাতুন (১৬) নামে এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। রবিবার (৩১ মে) সকালে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার পূর্নিমাগাঁতী ইউনিয়ের পুঠিয়া গ্রামে এ ঘটনা। পূর্নিমাগাঁতী ইউনিয়নের ফলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী হিসেবে এ পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে সে। ওই ছাত্রী উপজেলার পূর্নিমাগাঁতী ইউনিয়নের পুঠিয়া গ্রামের ময়নাল হোসেনের মেয়ে। দুই বোনের মধ্যে মাফিয়া ছিল ছোট।

পরীক্ষায় ফেল করায় বিষপানে লাইজু আক্তার নামে এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। রবিবার (৩১ মে) ফল প্রকাশের পর লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার পাটিকাপাড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। তার পিতার নাম জেল হক। সে পারুলিয়া তফসীল হাইস্কুল এন্ড কলেজ থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন।

পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে মানছুরা (১৬) নামের এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। রবিবার (৩১ মে) বেলা ১২টার দিকে নিজ ঘরের ধর্নার সাথে ঝুলে সে আত্মহত্যা করে। গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার গোসিঙ্গা ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই গ্রামের সৌদি প্রবাসী হান্নান মিয়ার মেয়ে তিনি।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আলাউদ্দিন জানান, লতিফপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় মানছুরা। আজ রবিবার ফলাফল ঘোষিত ফলাফলে তিনি অকৃতকার্য হন। ফল ঘোষণার পরই তিনি খালি ঘরে ধর্ণার সাথে ওড়নায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পরীক্ষায় ‘সি’ গ্রেড পাওয়ায় পিয়ারুল ইসলাম (১৭) নামের এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। রবিবার (৩১ মে) দুপুরে ২টার দিকে ঝিনাইদহের মহেশপুরের শাহাবাজপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত পিয়ারুলের বাবার নাম ঝন্টু মন্ডল। সে স্থানীয় খালিশপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মানবিক বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

মহেশপুর থানার ওসি তদন্ত রাশেদুল আলম জানান, পিয়ারুল ইসলাম যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে খালিশপুর বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল। আজ ফলাফল প্রকাশের পর সে জানতে পারে ‘সি’ গ্রেড (২.৭৮ পেয়ে) কৃতকার্য হয়েছে।

পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় হবিগঞ্জের এক কিশোরী আত্মহত্যা করেছে। নিহত পরশ মনি লাখাই উপজেলার বেগুনাই গ্রামের জামাল উদ্দিনের মেয়ে। সে মাদনা এসইএসডি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল।

লাখাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুল ইসলাম পারিবারিক উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, আজ এসএসসির ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর অকৃতকার্য হলে সকলের অগোচরে বিষপান করে পরশমনি। তাকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।