কলেজের অ্যাকাউন্ট থেকে ৭২ লাখ টাকা আত্মসাৎ, অধ্যক্ষ জেলে


রাজশাহি
Published: 2020-10-19 16:16:04 BdST | Updated: 2020-12-06 06:45:06 BdST

রাজশাহীর গোদাগাড়ী সরকারি কলেজের ব্যাংক হিসাব থেকে প্রায় সাড়ে ৭২ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় কলেজটির অধ্যক্ষ আব্দুর রহমানকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে রাজশাহী জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক মীর শফিকুল ইসলাম তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে ২০১৮ সালে গোদাগাড়ী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে সিনিয়র স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল ও রাজশাহী দায়রা জজ আদালতে মামলা করেন একই কলেজের উপাধ্যক্ষ উমরুল হক। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে দুদক রাজশাহী সমন্বিত জেলা কার্যালয়কে তদন্তের নির্দেশ দেন।

রাজশাহী জেলা দুদকের সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আলমগীর হোসেন মামলাটি তদন্ত করেন। তদন্ত প্রতিবেদনে অধ্যক্ষ আবদুর রহমান কলেজ ব্যাংক হিসাব থেকে ৭২ লাখ ৪২ হাজার ৭৩০ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে, অধ্যক্ষ আবদুর রহমানের শ্যালক সেলিম হাসান অন্য সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত থাকলেও গোদাগাড়ী কলেজে তার আগের যোগদান বহাল রাখেন এবং তাকে সরকারি কলেজের শিক্ষক করার জন্য সেলিম হাসানের কাগজপত্র ডিজিতে পাঠান।

এছাড়াও তিনি কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক হিসেবে তারেক আজিজকে নিয়োগ দেওয়ার জন্য চেকের মাধ্যমে ৯ লাখ টাকা এবং বাংলা বিভাগের প্রভাষক মনিরুল ইসলামের কাছ থেকে ৮ লাখ টাকা ঘুষ গ্রহণ করেছেন। প্রভাষক প্রার্থী মনিরুল ইসলাম নিজেই ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬১ ধারায় দুদকের কাছে এ জবানবন্দি দিয়েছেন।

ফলে দুদকের তদন্তে আবদুর রহমানের ঘুষ নেওয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে। আদালত এসব প্রতিবেদন পাওয়ার পর সোমবার অধ্যক্ষকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।