তরুণ শেষ দেখায় বাবাকে বলেছিলেন ‘বেঁচে থেকে কোনও লাভ নেই’


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-02-15 23:50:44 BdST | Updated: 2018-06-21 16:11:05 BdST

ছয় তলা ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তরুণ হোসেন আত্মহত্যা করেছে। বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালের দিকে হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ এলাকায় নির্মাণাধীন ভবন থেকে লাফ দেন তিনি। হাজারীবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত তরুণের গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়া জেলায় ৷তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হলের আবাসিক ছাত্র ছিলেন।

তরুণের বাবার বরাত দিয়ে হাজারীবাগ থানার ওসি ইকরাম আলী মিয়া বলেন, ‘আত্মহত্যার ১৫ দিন আগে বাড়িতে গিয়েছিলেন তরুণ। তখন বাবার কাছে বার বার পরীক্ষায় অকৃতকার্যের কথা জানিয়েছেন তিনি। বিভাগে বার বার ফেল করে চরম হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন তিনি। সেসময় তিনি বাবার কাছে জানান, বেঁচে থেকে কোনও লাভ নেই।’

তরুণের বাবা ওসিকে জানান, ‘দ্বিতীয় বর্ষে ওঠার পরে তরুণ আমাকে অনেক অনুরোধ করেছিল- আমি যেন ওকে উপাচার্য স্যারের কাছে নিয়ে যাই এবং ওর সাবজেক্ট চেঞ্জ করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করি। আমি হেসে বলেছিলাম- মানুষ ফিনান্স পায় না আর তুই পড়বি না। তাও আবার দ্বিতীয় বর্ষে উঠে।’

‘আসলে মানসিক কষ্ট, আর্থিক সংকট আর ডিপার্টমেন্টের চাপ সব একসঙ্গে না নিতে পেরে সে ওই অনুরোধ করেছিল। পরে জেনেছিলাম, ও নিজেই বিজনেস ফ্যাকাল্টির ডিন শিবলি রুবাইয়াতুল স্যারের কাছে গিয়েছিল। স্যারও ওকে বুঝিয়ে ফেরত পাঠিয়েছেন’, এভাবেই বলছিলেন তরুণের বাবা।

উল্লেখ্য, গতকাল ১৪ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) বিকালের দিকে হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ কলার আড়ত এলাকায় নির্মাণাধীন ছয় তলা ভবন থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেন তরুণ।

 বাংলা ট্রিবিউন

বিডিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।