একুশ উদযাপনে শহীদ মিনারমুখী ঢাকাবাসী


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-02-20 23:53:42 BdST | Updated: 2018-09-23 05:35:03 BdST

রাত ১২ টার আগেই একুশের পূর্ব মুহূর্তে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রভাতফেরির মিছিলে ঢল নেমেছে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের। ভোরের রক্তিম সূর্য উঁকি দিতেই বুকে শোকের কালো ব্যাজ পরে, হাতে ফুল, ফুলমাল্য, গালে আল্পনা এঁকে শহীদ মিনার অভিমুখে ছুটছেন সবাই। মুখে সেই কালজয়ী গান আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি...। সারিবদ্ধভাবে শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠনগুলো। বিশ্ববিদ্যালয়, করেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি ঢাকার বাইরে থেকেও অনেকেই আসছেন ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে।

রাত ১২টায় একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি জাতির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানাবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তারা শহীদদের স্মরণে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকবেন। পরে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী শহীদদের স্মরণে শহীদ বেদিতে ফুল দেবেন। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা জানানোর পর সর্ব সাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হবে শহীদ মিনার এলাকা। এরপর থেকে বিভিন্ন সামাজিক-রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে। 

এরপর একে একে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, আওয়ামী প্রজন্ম লীগ, বাংলা একাডেমি, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন শহীদ মিনারের বেদিতে শ্রদ্ধা জানাবে। রাত থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, পলাশী, শাহবাগ, হাইকোর্ট প্রভৃতি সড়কে রয়েছে মানুষের দীর্ঘ সারি। ফুলের পাশাপাশি সবার হাতে রয়েছে বিভিন্ন ফেস্টুন ও ব্যানার। রাতভর চলবে শ্রদ্ধা নিবেদন। ভোরের আলো ফোটার সঙ্গে সঙ্গে তা প্রভাত ফেরির মিছিল আরো লম্বা হবে। শহীদ মিনারমুখী প্রবেশপথগুলো পরিণত হয়েছে জনস্রোতে। 

 

বিডিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।