জেএসসি-জেডিসিতে নম্বর ও বিষয় কমছে: সচিব


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2018-05-27 20:54:07 BdST | Updated: 2018-08-17 17:45:48 BdST

শিক্ষার্থীদের উপর চাপ কমাতে আগামী জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা থেকে নম্বর ও বিষয় কমানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে এবছর পরীক্ষায় এমসিকিউ থাকবে বলেও জানানো হয়েছে।

রোববার (২৭ মে) সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জাতীয় শিক্ষাক্রম সমন্বয় কমিটির (এনসিসিসি) সভা শেষে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভগের সচিব মো. সোহরাব হোসোইন সাংবাদিকদের একথা জানান।

তিনি বলেন, শিশু শিক্ষার্থীদের উপর বেশি চাপ পড়ছে বলে চাপ কমানোর উদ্যোগ নিয়েছি। আপাতত কিছু বিষয় কমানো যায় কি-না, কমালে এবছর থেকে বাস্তবায়ন করবো।

সিলেবাসের বিষয়ে সচিব বলেন, এমন হতে পারে যে সিলেবাসের পুরোটাই থাকবে, কিন্তু এক বছর এক অংশ থাকবে, পরের বছর অপর অংশ।

বছরের মধ্য সময়ে এসে পরিবর্তন নিয়ে সচিব বলেন, আমরা চাই এমন সিদ্ধান্ত, যাতে কোন শিক্ষার্থী বা অভিভাবকের দুঃচিন্তা করার কোন কিছু থাকবে না।

জেএসসি-জেডিসিতে বর্তমানে চতুর্থ বিষয়সহ ১০টি বিষয়ে মোট ৮৫০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হয়। গত ২০ মে শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা সভায় সাতটি বিষয়ে মোট ৬৫০ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তাব করেছে।

আগামী ৩১ মে সভায় নম্বর ও বিষয় কমানোর বিষয়টি চূড়ান্ত হবে বলে জানান মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব।

জেএসসি-জেডিসিতে এবছর এমসিকিউ থাকছে কি-না, জানতে চাইলে সচিব বলেন, এবছর সিদ্ধান্ত এখন পর্যন্ত পরিবর্তন আসেনি।

তিনি বলেন, আমি সবসময় এমসিকিউ এর বিপক্ষে। এমসিকিউ অত্যন্ত উন্নতমানের একটা পদ্ধতি। কিন্তু আমরা সেই পর্যায়ে এখনও পৌঁছাইনি। শুধু এমসিকিউ নয়, পরীক্ষা মানেই হচ্ছে সারা বছর যা পড়লে সেটি সে একা একা পরীক্ষার খাতায় প্রকাশ করবে; সেখানে কোন ধরনের তথাকথিত সহযোগিতা কারো কাছে নিতে পারবে না। কিন্তু আমরা সে রকম পারি না, বিশেষ করে আমরা এমসিকিউ নিয়ে বিভিন্ন অভিযোগ পাই- বলে দিচ্ছেন, কেউ কনট্রাক্ট নিচ্ছেন এ ধরনের বিষয় আছে এবং এমসিকিউ এর জন্য মরিয়া হয়ে মানুষ অনেক কিছু করছেন।

‘যে পরীক্ষা কাউকে সঠিক মূল্যায়ন করতে সহযোগিতা করে না বা সঠিক মূল্যায়ন করে না, সে পরীক্ষা থাকার আমি মনে করি কোন যুক্তি নেই’। সচিব বলেন, আমি মনে করি এমসিকিউ না থাকলে যে স্তর থেকে শুরু হচ্ছে সেখান থেকে শুরু করতে হবে।

এসএম/ ২৭ মে ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।