হাফ গার্লফ্রেন্ড


খাদিজা মনোয়ারা
Published: 2017-06-13 07:25:32 BdST | Updated: 2019-12-11 20:47:09 BdST

হাফ গার্লফ্রেন্ডবই : হাফ গার্লফ্রেন্ড
মূল : চেতন ভগত
রূপান্তর : ইয়াসির মনন
প্রকাশক : বইপোকা প্রকাশনা
প্রচ্ছদ : তোফায়েল
মুদ্রিত মুল্য : ২৫০
পৃষ্ঠা সংখ্যা : ২৪০
-
কাহিনী সংক্ষেপ :
বিহারের এক মেধাবী, বাস্কেটবল খেলায় পারদর্শী এবং সৌম্যদর্শন তরুন- মাধব ঝা। বড় বংশের ছেলে সে। তবে বংশ টিকে থাকলেও সময়ের গর্ভে হারিয়েছে বড় শব্দটি। দিল্লীর নামকরা ইংলিশ মিডিয়াম কলেজে পড়তে এসে দেখা হয় রিয়ার সাথে। জীবনে নতুন দুয়ার খুলে যায় তার।
রাজ্যহীন রাজকুমার মাধবের পরিবার, হারানো ঐতিহ্য এমনকি ছোট্ট ঘরের গল্পের মণ্ত্রমুগ্ধ শ্রোতা রিয়া নিজের কথা বলে কমই। ধনাঢ্য পিতার মেয়ে হয়েও যেন গল্প করার বিষয় ছিল না তার। আত্মসম্মানবোধসম্পন্ন এই সুন্দর মেয়েটিকে কোন সে গোপন ব্যথা নিশ্চুপ করে রাখে?
রিয়া সম্পর্কটাকে শুধু বন্ধুত্বের মাঝে রাখতে চাইলেও বাস্কেটবল ফ্রেন্ড রিয়াকে ভালবেসে ফেলে মাধব। একটা সমঝোতায় আসে দুজনে। রিয়া হয় তার হাফ গার্লফ্রেন্ড।
কিন্তু সামাণ্য একটা ভুল রিয়াকে দূরে চলে যেতে বাধ্য করে। কিভাবে হবে ভুল বুঝাবুঝির অবসান? আদৌ কি হবে?
কয়েক বছর পর। নিয়তি আবার দুজনকে মুখোমুখী করে ভিন্ন পরিবেশে। আবার সেই একই অনুভূতি, একই ভালবাসা মাধবকে একটু একটু করে স্বপ্ন দেখতে শেখায়। কিন্তু হায়! আবার হারিয়ে যায় রিয়া, মাধবকে চূর্ণ- বিচূর্ন করে দিয়ে। কোথায় সে? কোথায় খুঁজবে সে তার হাফ গার্লফ্রেন্ডকে? তার জীবনের একমাত্র চাওয়া ভালবাসাকে?
এইখানেই শেষ নয়। এ গল্পের শেষে আছে অসম্ভবকে সম্ভব করা টুইস্ট। জানতে চান সেটি কি? জানতে হলে পড়তে হবে বইটি।
-
পাঠ প্রতিক্রিয়া :
দেড় লক্ষ সদস্যের সংঘবদ্ধ গ্রুপ বইপোকাদের আড্ডাখানার হাত ধরে বইপোকা প্রকাশনার প্রথম যাত্রা হিসেবে এই বইটির প্রতি আশা অনেক বেশি ছিল। বই হাতে নিয়েও আশা নিরাশার দোলায় দুলছিলাম। এতটুুকু বলতে পারি নিরাশ হই নি।
কখনো হেসেছি, কখনো চোখ ছলছল করে উঠেছে, কখনো রাগে গরগর করেছি। আর এসবই সম্ভব হয়েছে সুন্দর একটি গল্পের চমৎকার অনুবাদের জন্য। এতটাই সাবলীল অনুবাদ হয়েছে যে পড়তে পড়তে একবারের জন্যও মনে হয় নি এটি কোন মৌলিক রচনা নয়। অশেষ শুভকামণা ইয়াসির মনন ভাইয়ের প্রতি। আপনাকে কাজী আনোয়ার হোসেন, অনীশ দাস অপু, রকিব হাসান প্রমুখদের তালিকায় দেখার আশা বেড়ে গেল। নিরাশ করবেন না যেন।
কিছু প্রিন্টং মিস্টেক আছে। দাঁড়ি কমার যথাযথ ব্যবহার হয় নি বেশ কয়েক জায়গায়। পরবর্তী মুদ্রণে সংশোধন করা হবে আশা করি। আর এটা ইচ্ছাকৃত নাকি মুদ্রণের জন্য হয়েছে ঠিক বুঝে উঠতে পারি নি, ২-৩ টি জায়গায় ভাষার ব্যবহারে বর্তমানে ব্যবহৃত কথ্য শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। যেমন: করবা, দিবা ইত্যাদি।
আমার ব্যক্তিগত অভিমত ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃত যা-ই হোক, অনুবাদ বা মৌলিক রচনা উভয় ক্ষেত্রেই শুদ্ধ ও প্রমিত শব্দ ব্যবহারই উত্তম।
যারা এখনো পড়েন নি, পড়ে ফেলুন। আশা করি ঠকবেন না।
বেঁচে থাকুক, ভাল থাকুক- ভালবাসা;
এবং ভালবাসার ভালবাসারাও।

রিভিউটি লিখেছেন: খাদিজা মনোয়ারা

জেএস/ ১৩ জুন ২২০১৭