৩৬তম বিসিএস: নন ক্যাডারে নিয়োগ পাচ্ছেন ২৭শ’ জন


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2018-01-05 10:49:32 BdST | Updated: 2018-08-17 17:48:44 BdST

পিএসসি কর্তৃক পরীক্ষা গ্রহণ ও ফলাফল ঘোষণার বিদ্যমান সময়ের ব্যবধান কমিয়ে আনার লক্ষ্যে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে কাছাকাছি সময়ে একাধিক বিসিএস পরীক্ষা গ্রহণ, দ্রুততম সময়ের মধ্যে ফলাফল ঘোষণা উল্লেখযোগ্য। তবে পিএসসির এসব কর্মকাণ্ডের মধ্যে ৩৮তম বিসিএসে প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস প্রতিরোধ বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার ৩৬তম বিসিএস থেকে ২০ জনকে ক্যাডার পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। নানা ত্রুটির জন্য এদের ফলাফল স্থগিত ছিল বলে পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক জানান। ৩৬তম বিসিএস ক্যাডারে এ নিয়োগের ফলে এই বিসিএসে ২ হাজার ৩৪৩ জন ক্যাডারভুক্ত হলেন।

সূত্র জানায়, প্রশাসনে ৮ জন, পুলিশে ৩ জন, সহকারী সার্জন পদে ২ জন, তথ্য ও কর ক্যাডারে ১ জন করে, বিভিন্ন শিক্ষা ক্যাডারে ৫ জনসহ মোট ২০ জনকে চাকরির জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। সব মিলে এই বিসিএসে পদের সংখ্যা হলো ২ হাজার ৩৪৩। ৩৬তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষায় ৫ হাজার ৯৯০ জন উত্তীর্ণ হন। প্রথম শ্রেণির ২ হাজার ১৮০ জন গেজেটেড কর্মকর্তা নিয়োগ দিতে ২০১৫ সালের ৩১ মে ৩৬তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। গত বছরের ৮ জানুয়ারি প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হয়। দুই লাখের বেশি পরীক্ষার্থী এতে অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হন মাত্র ১৩ হাজার ৬৭৯ জন। গত বছরের সেপ্টেম্বরে তাঁদের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেন ১২ হাজার ৪৬৮ জন। চাকরিপ্রার্থীরা মৌখিক পরীক্ষা দেওয়া শুরু করেন ১২ মার্চ থেকে। তা শেষ হয় ৭ জুন।

এদিকে ৩৬তম বিসিএস থেকে ইতোমধ্যে ৭০০ জনকে উপ-সহকারী প্রকৌশলী নিয়োগদান করা হয়েছে। ৩৬তম বিসিএসে নন-ক্যাডার পদে আবেদনকারী ২৭০০ জনের সকলকেই নিয়োগদান করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন পিএসসি চেয়ারম্যান। এ বিসিএসে অপেক্ষমাণ তালিকায় আছে ৩২০০ জন। বর্তমানে ৩৭তম বিসিএসে মৌখিক পরীক্ষা চলমান রয়েছে। ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। শিগগিরই এর ফলাফল ঘোষণা ও লিখিত পরীক্ষার আয়োজন করা হবে। একইসঙ্গে নেওয়া হবে ৩৯তম বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের পরীক্ষা। ৩৯তম বিসিএসের জন্য আবেদন গ্রহণ এখন বিবেচনাধীন রয়েছে।

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা (পিএসসি), জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি, ডিগ্রি, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় যখন প্রশ্ন ফাঁসই একটি সংস্কৃতিতে পরিণত হয়েছে তখন এবারের ৩৮তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস না হওয়াটাকে বিশেষজ্ঞ মহল এটিকে দৃষ্টান্ত হিসাবে দেখছেন। পিএসসি চেয়ারম্যান এ প্রসঙ্গে দাবি করেছেন যে তাদের আন্তরিকতা ও কৌশল এবং সকল মহলের সহযোগিতা প্রশ্নফাঁস প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রেখেছে।

এমএন/ ০৫ জানুয়ারি ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।