ইডেনে ফের ছাত্রলীগ নেত্রীদের মারামারি, আহত নেত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি


টাইমস ডেস্ক
Published: 2019-11-11 14:22:37 BdST | Updated: 2019-12-12 16:37:30 BdST

ইডেন মহিলা কলেজের শেখ ফজিলাতুন্নেছা ছাত্রীনিবাসে সিটবাণিজ্য ও বহিরাগত থাকা নিয়ে ছাত্রলীগ নেত্রীদের দুপক্ষে কোপাকুপির রেশ না কাটতেই আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

এবার ইডেন শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন যুগ্ম আহ্বায়ক মিলে ছাত্রলীগের এক কর্মীকে মারধর করেছেন।

আহত সুস্মিতা বাড়ৈকে রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার সকালের দিকে হলের সিট বাণিজ্য ও সিট নিয়ন্ত্রণ করা নিয়ে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন যুগ্ম আহ্বায়ক মিলে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা ছাত্রীনিবাসের ছাত্রলীগের সদস্য সুস্মিতা বাড়ৈর ওপর হামলা করেন। পরে তাকে রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সূত্রে জানা গেছে, ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জান্নাত আরা জান্নাত, রিভা আক্তার, পাপিয়া আক্তার প্রিয়া, পাপিয়া রায়, বীথি আক্তার, জারিন পূর্ণি ও ইতি আক্তারসহ আরও কয়েকজন মিলে সুস্মিতাকে মারধর করেছেন।

মারধরের শিকার সুস্মিতা বাড়ৈ ইডেন কলেজের ২০১৪-১৫ সেশনের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী। তার গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলায়।

বঙ্গমাতা হলের শিক্ষার্থীরা জানান, বেশ কয়েক দিন ধরে কলেজে ছাত্রলীগের সদস্যরা চেষ্টা করছেন হলের পলিটিক্যাল রুম তাদের নিয়ন্ত্রণে নিতে।

অন্যদিকে যুগ্ম আহ্বায়করা চেষ্টা করছেন তাদের নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য। প্রথম বর্ষে যারা ভর্তি হবেন, সেই শিক্ষার্থীদের টাকার বিনিময়ে হলে তুলে সিটবাণিজ্য কেন্দ্র করে এসব সংঘর্ষ হচ্ছে। হলে সিটবাণিজ্যের পুরোটা নিয়ন্ত্রণ করে শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়করা।

এর আগে গত শনিবার সিটসংক্রান্ত দ্বন্দ্বের জের ধরে সাবিকুন্নাহার তামান্না নামে এক ছাত্রলীগ সদস্যকে বটি দিয়ে কোপান ছাত্রলীগের আরেক কর্মী।

এ বিষয়ে ইডেন কলেজ শাখার কয়েকজন যুগ্ম আহ্বায়ককে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তারা ফোন রিসিভ করেননি। তবে ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও অভিযুক্ত রিভা মারধরের কথা অস্বীকার করেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে ইডেন মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক শামসুন্নাহারকে বারবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।