দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে কলেজে ভর্তির কার্যক্রম


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2020-09-14 12:52:13 BdST | Updated: 2020-09-21 18:49:32 BdST

সারাদেশে দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির কার্যক্রম। কলেজে ভর্তির কার্যক্রমে অংশ নিতে রাজধানীর বিভিন্ন কলেজে আসছে শিক্ষার্থীরা। আবার কোথাও কোথাও পুরোপুরি অনলাইনেই চলছে ভর্তি কার্যক্রম। এই ভর্তির কার্যক্রম চলবে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

করোনাকালে শঙ্কা থাকলেও ভর্তি কার্যক্রম শুরু হওয়ায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। মহামারীর এই সময়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে নিতে ক্লাস হবে অনলাইনে।

অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে ক্লাস। চলমান করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ৯ আগস্ট অনলাইনে শুরু হয় একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন। চলে ২০ আগস্ট পর্যন্ত।

জানা গেছে, এবারও মোট তিন ধাপে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ভর্তির আবেদন নেয়া হয়। প্রায় ১৪ লাখ শিক্ষার্থী ভর্তির আবেদন করেছে। এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাস করেছে ১৬ লাখ ৯০ হাজার ৫২৩ জন।

ভর্তির ক্ষেত্রে অনুসরণীয় নীতিমালা ইতোমধ্যে সরকার প্রকাশ করেছে। এরপরও ৮ সেপ্টেম্বর পৃথক দুটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, পৌর (উপজেলা) এলাকার এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তিতে সেশন ও ভর্তি ফিসহ সাকুল্যে এক হাজার টাকা, পৌর (জেলা সদর) এলাকায় দুই হাজার টাকা এবং ঢাকা মহানগর ছাড়া অন্য মেট্রোপলিটন এলাকার প্রতিষ্ঠানগুলো তিন হাজার টাকার বেশি আদায় করতে পারবে না।

ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তিতে পাঁচ হাজার টাকার বেশি অর্থ আদায় করা যাবে না। ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার আংশিক এমপিওভুক্ত বা এমপিওবহির্ভূত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উন্নয়ন ও এমপিওবহির্ভূত শিক্ষকদের বেতন-ভাতা দেয়ার জন্য শিক্ষার্থী ভর্তি ফি, সেশন চার্জ, উন্নয়ন ফিসহ বাংলা মাধ্যমে সর্বোচ্চ সাড়ে সাত হাজার টাকা এবং ইংরেজি ভার্সনে সর্বোচ্চ সাড়ে আট হাজার টাকা নিতে পারবে।

উন্নয়ন খাতে কোনো প্রতিষ্ঠান এবার দেড় হাজার টাকার বেশি আদায় করতে পারবে না। গত বছর এ খাতে ৩ হাজার টাকা ছিল। করোনা পরিস্থিতির কারণে এই ফি কমিয়েছে বোর্ড। এছাড়া রেড ক্রিসেন্ট ফি ৪০ শতাংশ কমিয়ে ১২ টাকা করা হয়েছে। কোনো শিক্ষার্থীর পাঠ বিরতি থাকলে ও বিলম্বে ভর্তি হলে যথাক্রমে ১৫০ টাকা এবং ১০০ টাকা আদায় করা যাবে। সরকারি কলেজগুলোকে সরকারি পরিপত্র অনুযায়ী ফি সংগ্রহ করতে হবে।