যুবলীগ নেতাকে ছাত্রলীগ নেতার এলোপাতাড়ি গুলি!


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-06-18 11:59:13 BdST | Updated: 2018-08-17 23:06:32 BdST

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায় যুবলীগের এক নেতাকে এলোপাতাড়ি গুলি করেছে ছাত্রলীগের নেতা ও তাঁর লোকজন সন্ত্রাসীরা। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় ওই যুবলীগ নেতাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

আহত হিরন আফ্রাদ শিবপুরের মাছিমপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি ও পরিবহন সংগঠনের নেতা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানিয়েছে, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে শিবপুর খরিয়া স্কুল সংলগ্ন এলাকায় সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এ উপলক্ষে স্কুলমাঠে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি করা হয় শিবপুর আসনের সাংসদ সিরাজুল ইসলাম মোল্লাকে। উদ্বোধক করা হয় উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মোশারফ হোসেনকে। অনুষ্ঠান চলাকালে প্রধান অতিথির পর উদ্বোধকের বক্তব্য দেওয়া হয়। অনুষ্ঠান শেষে এ নিয়ে যুবলীগ নেতা হিরনের সঙ্গে ছাত্রলীগ নেতা মোশারফের কথা কাটাকাটি হয়।

এরই জের ধরে সন্ধ্যায় মোশারফের নেতৃত্বে আট-দশজন লোক অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে শিবপুর বাসস্ট্যান্ডে হিরনের ওপর হামলা চালায়। এ সময় হিরনকে লক্ষ্য করে এলোপাতারি গুলি করা হয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন যুবলীগ নেতা হিরন। পরে আশপাশের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় পাঠানো হয়।

অপর একটি সূত্রে জানা যায়, ইটাখোলা এলাকায় বাস, ট্রাক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা থেকে বিভিন্ন হারে চাঁদা আদায় করেন পরিবহন নেতারা। চাঁদাবাজির টাকার ভাগ-ভাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে হিরনের সঙ্গে মোশারফের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। ওই সব দ্বন্দ্বের জের ধরে নাম ঘোষণাকে কেন্দ্র করে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

গুলির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শিবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, হামলা ও গুলির ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। একই সঙ্গে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করা হয়েছে।

হামলার পরপর ছাত্রলীগ নেতা মোশারফ হোসেন পালিয়ে যাওয়ায় তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

শিবপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাখিল আহমেদ বলেন, ‘ছাত্রলীগ নেতা মোশারফ হোসেন একাধিক অপকর্মের সঙ্গে জড়িত। হিরনের ওপর গুলি করার ঘটনায় আমি তীব্র নিন্দা জানাই ও মোশারফের বিচার দাবি করছি।’

জেলা যুবলীগের সভাপতি বিজয় কুমার চক্রবর্তী বলেন, ‘ছাত্রলীগের নেতা হয়ে যুবলীগের নেতাকে গুলি করা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। সেই সঙ্গে আহ্বায়কের পদ থেকে মোশারফের বহিষ্কার দাবি করছি।’

এসটি/ ১৮ জুন ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।