আন্দোলনের মুখে রমজানে পরীক্ষা স্থগিত করল আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়


টাইমস ডেস্কআনোয়ার হোসেন লিমন
Published: 2018-05-29 18:10:08 BdST | Updated: 2018-06-22 23:07:10 BdST

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে রমজানে চলমান মিডটার্ম পরীক্ষা স্থগিত করেছে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি)। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে সকল ডিপার্টমেন্টের মিডটার্ম শুরু হয় চলতি মাসের ২৪ তারিখে। কিন্তু প্রচন্ড গরমে পরীক্ষার মাঝপথে অতিষ্ঠ হয়ে উঠে শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি রমজানে পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের ইবাদতেও বিরুপ প্রভাব পড়তে শুরু করে।

মঙ্গলবার সকাল নয়টা থেকে শিক্ষার্থীরা রমজানে পরীক্ষা না নেওয়ার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে একত্রিত হতে থাকে। এর কিছুক্ষণ পর ফিমেইল একাডেমী থেকে ছাত্রীরা গ্রন্থাগারের সামনে আন্দোলনকারীদের সাথে যুক্ত হওয়ার পরপরই আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ের রুপ নেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইল-ফিমেইল সেকশন পৃথক হয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। এইসময় শিক্ষার্থীদের রমজানে পরীক্ষা না নেয়ার দাবিতে স্লোগান দিতে দেখা যায়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি দেলোয়ার হোসেন প্রশাসনিক ভবনে উপস্থিত হয়ে সকল ডিপার্টমেন্ট এর চেয়ারম্যান, ডিন ও প্রোক্টরদের সাথে আলোচনায় বসেন। আলোচনার এক পর্যায়ে আন্দোলনকারীদের মাঝ থেকে ১০জন শিক্ষার্থীকে ছাত্র প্রতিনিধি হিসেবে ডাকা হয়। আলোচনায় ছাত্র প্রতিনিধিরা তাদের যুক্তিক দাবী উপস্থাপন করে এবং মেনে নেয়ার আহ্বান জানান। লম্বা সময় ধরে চলতে থাকা আলোচনায় শিক্ষার্থীদের দাবি আমলে নিয়ে রমজানের সকল পরীক্ষা স্থগিতাদেশ দেয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোক্টর মোহাম্মদ কাউসার আহমেদ জানান, 'রমজানে সকল পরীক্ষা স্থগিত। রমজানে স্থগিত হওয়া এই পরীক্ষাগুলো ঈদের পর অর্থাৎ আগামী মাসের ২৪ তারিখ থেকে নেয়া হবে এবং আগামী সপ্তাহের শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ক্লাস হবে'।

আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই ডিপার্টমেন্টের এক শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসটাইম ডট প্রেসকে জানান 'অসহ্য গরমে রমজানে পরীক্ষা দেয়াটা আমাদের জন্য খুব কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। যা আমাদের পড়াশুনা ও ইবাদতে বিরুপ প্রভাব পড়ছে। যার কারনে আমরা আন্দোলনে নেমেছি'।

'রমজানে পরীক্ষা স্থগিত হয়েছে' বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে আন্দোলনে অংশ নেয়া ইএলএল ডিপার্টমেন্ট-এর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্রী বলেন, 'আমি অনেক বেশি সন্তুষ্ট কারন পরীক্ষার চাপ নেই। আমরা যথা সময়ে প্রিপারেশন নিয়ে পরীক্ষা দিতে পারবো। রোজার নামাজ দোয়াও ঠিকভাবে পালন করতে পারবো আর ঈদের ৬ দিন পর এক্সাম হওয়াতে ঈদটাও আলহামদুলিল্লাহ ভালোই কাটাতে পারবো'।

এদিকে সকাল থেকে শুরু হওয়া আন্দোলনের কারণে সকল ডিপার্টমেন্ট-এর পরীক্ষা বন্ধ থাকলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (ইটিই) এবং ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) ডিপার্টমেন্টে যথারীতি পরীক্ষা নিয়েছে। আন্দোলনের মাঝে পরীক্ষা নেয়ায় ডিপার্টমেন্ট দুইটির প্রতি ক্ষোভ দেখিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

এসএম/ ২৯ মে ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।