ছাত্রীকে নগ্ন হয়ে নাচতে বললেন জবি শিক্ষক মিল্টন!


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-02-20 17:51:53 BdST | Updated: 2018-12-10 20:24:52 BdST

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) বাংলা বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের এক ছাত্রীকে ক্লাস থেকে বেরিয়ে গিয়ে নগ্ন হয়ে নাচতে বলার অভিযোগ উঠেছে একই বিভাগের অধ্যাপক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ পরিচালক ড. মিল্টন বিশ্বাসের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ওই ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে লিখিতভাবে এমন একটি অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানা যায়।

জানা যায়, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) ক্লাস চলাকালীন ওই ছাত্রী পাশের সহপাঠীর সঙ্গে কথা বলেন। এসময় মিল্টন বিশ্বাস ওই ছাত্রীকে সহপাঠীদের সামনে দাঁড় করান এবং কেন এমনটা করেছেন জানতে চান।

পরে মিল্টন বিশ্বাস বলেন, ক্লাস ভালো না লাগলে বাইরে চলে যাও এবং নগ্ন হয়ে নাচো। তুমি তো মেয়ে, মেয়েরা নগ্ন হয়ে তো নাচেই। তুমিও নাচতেই পারো!

অভিযোগের বিষয়টি স্বীকার করে ওই ছাত্রী বলেন, উনি একজন শিক্ষক এবং একজন অধ্যাপক হয়ে এমন কথা বলতে পারেন না। আমি মানছি এবং বুঝে স্বীকার করছি যে, ক্লাস চলাকালীন সহপাঠীর সঙ্গে কথা বলা আমার অন্যায় হয়েছে। আমি তার মেয়ের বয়সের। তাই বলে আমাকে তিনি এমন অশালীন কথা বলতে পারেন না।

‘আমি জানি না তার কী হবে বা কী বিচার হওয়া উচিত। বিষয়টি আমার কাছে লাঞ্ছনার মনে হয়েছে। তাই লিখিতভাবে প্রক্টর ও উপাচার্যকে জানিয়েছি। এখন ওনারাই যা ব্যবস্থা নেওয়ার নেবেন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলা বিভাগের অধ্যাপক হোসনে আরা জলি সাংবাদিকদের বলেন, এমন একটি ঘটনা আমি জানি। এর বেশি তিনি কিছু বলতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে মিল্টন বিশ্বাসের কাছে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তার ফোন ব্যস্ত থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে জবি প্রক্টর ড. নুর মোহাম্মদ বলেন, আমাদের কাছে এমন একটি অভিযোগ এসেছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ এলে তা প্রক্টর নয় বরং উপাচার্য বরাবর করতে হয়। তাই আমরা অভিযোগটি দেখিনি। সূত্র: বাংলানিউজ।

এসজে/ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।