ঢাবির অধ্যাপক কাবেরী গায়েনকে হত্যার হুমকি


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-06-07 22:01:36 BdST | Updated: 2018-08-14 21:43:24 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের নবনিযুক্ত চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. কাবেরী গায়েনকে চিঠি পাঠিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)।

গত সোমবার ওই চিঠি পান কাবেরী গায়েন। এরপর মঙ্গলবার বিকেলে শাহবাগ থানায় নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তিনি।

ওই চিঠিতে লেখা আছে, ‘সাবধান ড. কাবেরী গায়েন, পোস্তগোলা সমাধিতে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হন। আমরা আপনার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।’ জেএমবি (অপারেশন) ঢাকা জোন থেকে ওই চিঠিটি পাঠানো হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সোমবার সকালে ঢাবির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের মেইলবক্সে ওই চিঠি পাওয়া যায়। তবে চিঠিটা এখানে কবে রাখা হয়েছে বা কারা এ চিঠি পাঠিয়েছে তা এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। এতে কোনো ধরনের সিল বা ঠিকানা ছিল না।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ড. কাবেরী গায়েন বলেন, ‘মেইলবক্স থেকে সব চিঠি বের করে আনা হলে অন্য গুরুত্বপূর্ণ সব চিঠির সাথে এ চিঠিটাও পাই। এর আগেও আমাকে হত্যার হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছিল। কেনো এসব চিঠি পাঠাচ্ছে আমি জানি না। আগে বাইরে থেকে চিঠি এসেছিল, এখন একদম বিভাগের মেইল বক্সে।’ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বিষয়টি ভালোভাবে তদন্ত করার আহ্বান জানান তিনি।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বলেন, ‘মঙ্গলবার ঢাবি অধ্যাপক কাবেরী গায়েন নিরাপত্তা চেয়ে থানায় একটা জিডি করেছেন। তদন্তের পর বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে এ বিষয়ে জানানো হয়েছে। ওই শিক্ষকের (কাবেরী গায়েন) নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য বলা হয়েছে।’

এর আগে ২০১৫ সালে দেশের ১০ বিশিষ্ট নাগরিককে হত্যার হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠায় ‘আল কায়েদা-আনসারুল্লাহ বাংলা টিম : ১৩’ নামের একটি সংগঠন। সেখানে ১০ জনের নামের পাশেই সংক্ষেপে তাঁদের অপরাধের কথাও উল্লেখ ছিল। সেই সময় কাবেরী গায়েনেকেও চিঠি পাঠানো হয়। তাঁর নামের পাশে লেখা ছিল ‘আইএনিমিডিইউ’।

এসএম/ ০৭ জুন ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।