প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সাথে মতবিনিময়

শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহবান শিক্ষামন্ত্রীর


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2018-08-05 18:52:18 BdST | Updated: 2018-11-21 12:50:58 BdST

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সকল শিক্ষার্থীকে রাজপথ ছেড়ে ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, যে উদ্দেশ্যে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেছিলেন, তা সফল হয়েছে। অনিয়ম-অসংগতির বিরুদ্ধে তাদের চেষ্টা সফল হয়েছে, তারা জাতিকে একটা জায়গায় নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। তাদের এই অর্জন ধরে রাখার জন্য এ পরিস্থিতি আর চলতে দেয়া যায় না। কারণ, এতে সুযোগ-সন্ধানীরা সুযোগ নিতে পারে। স্বার্থান্বেষী মহল গুজব রটিয়ে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি করতে পারে। এমন কিছু করা যাবে না, যাতে তাদের এ সাফল্য হারিয়ে যায়।

রোববার (০৫ আগস্ট) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ঢাকা মহানগরীর সকল কলেজের (সরকারি-বেসরকারি) অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন।

দু’জন শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনাকে মর্মান্তিক উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দূঃখ, কষ্ট-বেদনা ও সেন্টিমেন্ট আমি ধারণ করি। তাদের অনুভূতিটা আমি স্বীকার করি। প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের সকল দাবী মেনে নিয়েছেন। এগুলো এখন বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তিনি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, নতুন প্রজন্মকে আধুনিক যুগের উপযোগী দক্ষতা দিতে চাই। তোমরা ভবিষ্যতের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে রাজপথ ছেড়ে পড়াশুনায় মনোযোগ দাও। ভবিষ্যতে তোমাদেরকে আরো বড় দায়িত্ব পালন করতে হবে। সমগ্র শিক্ষা পরিবারের পক্ষ হতে তিনি শিক্ষার্থীদের আগামীকাল থেকে ক্লাসে যোগ দেয়া আহবান জানান।

প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সাথে শিক্ষামন্ত্রীর মতবিনিময়

 

শিক্ষামন্ত্রী কলেজের অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষদের উদ্দেশে বলেন, প্রতিষ্ঠানের প্রধান হিসেবে ছাত্র-অভিভাবকদের সাথে আলোচনা করতে হবে। ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে আলাপ করে তাদেরকে শ্রেণিকক্ষে নিয়ে আসতে হবে। তাঁরা যেহেতু প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব প্রদান করছেন, এটা তাদের দায়িত্ব।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর মো. মাহাবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন। সচিব বলেন, কোন শিক্ষার্থী কোন অবস্থাতেই যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে। তাদেরকে পাঠক্রমে, ক্লাসরুমে ফিরে আসতে হবে।

সভায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ এবং প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকগণ তাদের মতামত তুলে ধরেন। মতবিনিময় সভাটি দুটি শিফটে সম্পন্ন হয়। প্রথম শিফটে ঢাকা মহানগরীর ২৪২টি সরকারি-বেসরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ এবং দ্বিতীয় শিফটে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকগণ অংশগ্রহন করেন।

এমএন/ ০৫ আগস্ট ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।