তালাকনামা হাতে পেয়েছি: অপু


টাইমস ডেস্ক
Published: 2017-12-07 09:55:58 BdST | Updated: 2017-12-14 08:14:14 BdST

আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে স্বামী শাকিব খানের পাঠানো তালাকের নোটিশ অবশেষে হাতে পেয়েছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। বুধবার তালাকের নোটিশ হাতে পাওয়ার কথা সাংবাদিকদের কাছে স্বীকার করেন নায়িকা।

গত ২২ নভেম্বর এ নোটিশ পাঠালেও তা প্রকাশ্যে আসে গত সোমবার বিকালে। তার পর থেকেই গত চার দিন ধরে আলোচিত এ জুটির তালাক বিষয়ক ঘটনায় সরগরম গোটা শোবিজ অঙ্গন। গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে ফলাওভাবে প্রচার করা হচ্ছে শাকিব-অপুর ঘর ভাঙার খবর। এমনকী, কলকাতার পত্রিকায়ও বেরিয়েছে খবর।

এ বিষয়ে বুধবার অপু বিশ্বাস সাংবাদিকদের জানান, ‘তালাকের নোটিশ হাতে পেয়েছি। আমার পরিবার আছে, অভিভাবক আছে। তাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।’

নিজের সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ২০০৮ সালে শাকিব খানকে বিয়ে করেন অপু বিশ্বাস। কাজেই, এখন সংসার ভেঙে গেলে তার সম্প্রদায় কখনোই আর তাকে স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ করবে না বলে বুধবার সাংবাদিকদের জানান অপু। তাই তালাকের মতো এমন ন্যাঙ্কারজনক সিদ্ধান্ত থেকে শাকিবকে সরে আসার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহায়তা কামনা করেন। এমনকী, নারী সংগঠনগুলোকেও পাশে চান তিনি।

অপু বিশ্বাসকে তালাক দিতে পারেন স্বামী শাকিব খান। এমন গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে গত ২০ অক্টোবর থেকে। ছেলে জয়কে কাজের মেয়ে শেলীর কাছে তালাবদ্ধ অবস্থায় রেখে অপু কলকাতা চিকিৎসা করাতে গেলে ক্ষুব্ধ হন শাকিব খান। তালাবদ্ধ থাকায় অপুর নিকেতনের বাসায় গিয়ে দেখা পাননি ছেলে জয়ের। যার কারণে তিনি থানায় জিডি পর্যন্ত করেন।

তাতে কাজ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ শাকিব সাংবাদিকদের ওই সময় বলেছিলেন, ‘অপু মা হিসেবে বিগ জিরো। ছেলের প্রতি তার মায়া-মমতা থাকলে কাজের মেয়ের কাছে এভাবে তালাবদ্ধ করে রেখে কলকাতা যেতে পারতো না। তার বিরুদ্ধে খুব শিগিগিরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।’

শাকিবের ওই দিনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু না বললেও সেটা যে ডিভোর্সের মতোই কিছু সেটা আন্দাজ করতে পেরেছিলেন সকলেই। অবশেষে গত সোমবার তালাকের নোটিশ পাঠানোর খবর জানাজানি হলে সেই ডিভোর্সের আশঙ্কাই স্পষ্ট হয়ে ওঠে। আইনে আছে, তালাকের নোটিশ পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পরে সেটি কার্যকর হবে। কাজেই, আলোচিত এ জুটির শেষ পরিণতি দেখতে আগামী তিন মাস ধৈর্য ধরতেই হচ্ছে।

জেএস/ ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।