বাংলাদেশী সিনেমায় নয় কলকাতার সিনেমায় বিনিয়োগ করবে জাজ


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-02-01 22:17:27 BdST | Updated: 2018-02-20 05:50:11 BdST

যৌথ প্রযোজনার নীতিমালার ঘোরাটোপে সংকটে পড়েছে প্রভাবশালী চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। ঢালিউড থেকে মুখ ফিরিয়ে এবার কলকাতার চলচ্চিত্রে অর্থ লগ্নির প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি।

বৃহস্পতিবার রাতে এ কথা জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার আবদুল আজিজ।

দেশের চলচ্চিত্র থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, “প্রধান বাধা যৌথ প্রযোজনার নীতিমালা। এ নীতিমালাই দেশের চলচ্চিত্র শিল্পকে ধ্বংস করছে। যৌথ প্রযোজনার সিনেমা এখন আর বানানো যাচ্ছে না। আর লোকাল সিনেমা তো দর্শক দেখছে না। তাহলে টাকা নষ্ট করব কেন?”

তিনি জানান, ইতিমধ্যে কলকাতায় অফিস খোঁজাখুঁজি শুরু হয়েছে। চলতি মাসেই সেখানে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনাও রয়েছে।

কলকাতায় ব্যবসায়িক কার্যক্রমের মানচিত্রও ইতিমধ্যে এঁকে ফেলেছেন এ প্রযোজক।

তিনি বলেন, “আর যৌথ প্রযোজনায় না। এখন থেকে কলকাতার লোকাল সিনেমায় ইনভেস্ট করব। বাংলাদেশে যেভাবে কাজ করেছি সেখানেও সেভাবেই করব।”

কলকাতা পর্বে যাত্রা শুরুর আগে ঢাকা পর্বের পাট চুকিয়ে নিতে খানিকটা সময় নিতে চায় জাজ। কারণ প্রযোজনার প্রতিষ্ঠানটির ব্যানারে বর্তমানে ‘পাষাণ’, ‘নূরজাহান’, ‘শনিবার বিকেল’সহ প্রায় পাঁচটি চলচ্চিত্রের শ্যুটিং প্রায় শেষ হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ছবিগুলো মুক্তি দেবেন।

“অনেক আগে থেকে আরও দুটি চলচ্চিত্রের পরিকল্পনা ছিল আমাদের। সেগুলোই আপাতত করব। এরপর আর ঢাকায় সিনেমা করব কিনা ভাবতে হবে। দেশের সিনেমায় ইনভেস্ট করার মনই উঠে গেছে।”-বলেন এ প্রযোজক।

গত বছর ঈদে মুক্তি পাওয়া যৌথ প্রযোজনার দুই চলচ্চিত্র ‘বস টু’ ও ‘নবাব’-এর বিরুদ্ধে যৌথ প্রযোজনার নীতিমালা ভঙ্গের অভিযোগ তুলে ছবিগুলো মুক্তি ঠেকাতে সক্রিয় হয় শিল্পী ও কলাকুশলীদের সংগঠনগুলো। পরে তা রূপ নেয় আন্দোলনে।

চিত্রনায়ক ফারুকের নেতৃত্বে চলচ্চিত্র পরিবারের ব্যানারে চলা আন্দোলনের মুখে যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র নির্মাণ সাময়িক ভাবে বন্ধ ঘোষণা করে তথ্য মন্ত্রণালয়।

পরে নতুন নীতিমালায় যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র নির্মাণের পথ উন্মুক্ত হলেও জাজ মাল্টিমিডিয়ার অভিযোগ, পথটি ফুলে নয়, হুলে বিদ্ধ!

 

বিডিনিউজ২৪

বিডিবিএস 

Loading...

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।