তারু ণ্যে র গ ল্প

‘জাতীয় সংসদে বিতর্ক করতে চাই’


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-01-23 18:58:08 BdST | Updated: 2019-02-17 12:52:28 BdST

নেত্রকোণার সীমান্ত ঘেঁষা উপজেলা কমলাকান্দার বাঘসাত্রা গ্রামে কৈশরের দুরন্ত দস্যিপনায় বেলা কাটছিল এস. এম. রাকিব সিরাজীর। ২০০৭ সাল, সবে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ছেন। একদিন রাকিব সিরাজীর বাবা শহরের বাসস্ট্যান্ডে এসে তাকে ঢাকার বাসে চড়িয়ে দেন। রাকিব প্রথমবারের মত ঢাকা আসছে।

মাতৃভূমিতে বিশাল সমাবেশে রাকিব 

সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড থেকে রাকিবকে গ্রহণ করেন বড় ভাই বিপ্লব সিরাজী। বড় ভাইকে সাথে করে রাকিব তার সবশেষ গন্তব্য আশকোণা হাজী ক্যাম্পে পৌঁছান। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে এখানে চলছে ‘জাতীয় শিশু-কিশোর সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা’র চূড়ান্ত পর্ব। প্রতিযোগিতায় রাকিব উপস্থিত বক্তৃতায় অংশ নিয়ে প্রথম স্থান লাভ করেন। এবারই শেষ নয়।

নবম শ্রেণিতে পড়ার সময়ে একই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে আবারও দেশসেরার খ্যাতি পান তিনি। সেই থেকে বক্তৃতার ভুবনে রাকিবের যাত্রা। স্কুল-কলেজ পেরিয়ে ২০১৫ সালে রাকিব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পা রাখেন। সে বছরই সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয় আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক জাতীয় বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রথম হয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেন। বক্তৃতার ভুবনে রাকিবের অধিপত্য কেমন? জানতে চাইলে হেসে বলেন ‘ আমি শুধু এটাই বলতে পারি যে, বক্তৃতায় আমি কখনো হারিনি।’

অতিথিদের সঙ্গে রাকিব 

প্রথম বর্ষেই ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির সদস্য হন রাকিব। বিতর্কেও তার সুখ্যাতি আছে। বক্তৃতা, বিতর্কের পাশাপাশি নিজেকে গড়ে তোলেন একজন সংগঠক হিসেবেও। রাকিব বর্তমানে ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৬ সালে সুচিন্তা ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘তারুণ্যের রাষ্ট্র ভাবনায় বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রতিযোগিতার কুইজে অংশ নিয়ে কম্পিউটার জিতেন রাকিব। রাকিব ভালো গানও করেন।

অতিথিদের সঙ্গে রাকিব

এতকিছুর মাঝেও রাকিব ডিপার্টমেন্টে ভালো অবস্থান ধরে রেখেছেন। আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ছাত্র রাকিবের সপ্তম সেমিস্টার অবধি গড় সিজিপিএ-৩.৭৫। কী করে বক্তৃতার প্রতি তার আগ্রহ জন্ম নেয়, জানতে চাইলে রাকিব জানান, তার এক নিকট দাদা খন্দকার আব্দুল হক। ছোট বেলায় সে দাদা রাকিবকে পাশে বসিয়ে রেডিও প্রচার হওয়া সংসদের অধিবেশন শোনাতেন। সংসদ অধিবেশনের বক্তৃতা শোনেই বক্তৃতার প্রতি রাকিবের আগ্রহ তৈরি হয়। তরুণ আলোচক হিসেবে বিভিন্ন টেলিভিশন টকশোতে রাকিব অংশ নিয়ে থাকেন। বিতর্ক আর বক্তৃতাকে সঙ্গ করে কতদূর যেতে চান? রাকিব মৃদ্যু হেসে বলেন, ‘জাতীয় সংসদেও বিতর্ক করতে চাই। সংসদই তো বক্তৃতা আর বিতর্কের চূড়ান্ত প্ল্যাটফর্ম।’

দৈনিক ইত্তেফাক থেকে নেয়া 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।