ক্যাম্পাসে প্রেম : ছাত্রীরা যেমন হয়!


রাজীব নন্দী
Published: 2017-10-19 22:06:46 BdST | Updated: 2018-02-18 07:20:15 BdST

[বি:দ্র : নিছক বিনোদনের জন্য রম্য কথন এটি। কারো সঙ্গে মিলে গেলেও আশা করছি বিষয়টি স্বাভাবিকভাবেই নেবেন।]

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন প্রেম আসেনি সেটা কী হয়। পড়াশোনার পাশাপাশি এখানে আছে প্রেম করার অবারিত সুযোগ। তবে সেখানে প্রেমিকারা কেমন হয় চলুন মিলিয়ে নেয়া যাক ... 

সংসারি প্রেমিকা : এরা বয়ফ্রেন্ডের জামা-কাপড় থেকে শুরু করে বেড শিটও ধুয়ে দেয় রুটিন করে। প্রতিনিয়ত নুডলস, ভাত আদান-প্রদানের মাধ্যমে এরা ক্যাম্পাসেই একটা মিনি ফ্যামিলি প্যাকেজ বানিয়ে ফেলে। প্রেমিক বাজার করে দেয় আর প্রেমিকা রান্না করে দেয়। কবি বলেছেন, এ ধরনের প্রেমিকা সম্প্রদায়কে চোখ বন্ধ করে বিয়ে করা যায়; হোক সে নিজের প্রেমিকা কি অন্যের।

ইয়ো ইয়ো প্রেমিকা : এরা সফটওয়্যারের ভার্সনের মতো নিজের বয়ফ্রেন্ডের আপডেট ভার্সন রাখতে পছন্দ করে। প্রেম বলতে এরা বোঝে শহরের দামি রেস্তোরাঁয় চেকইন দেওয়া আর শপিংয়ে সঙ্গে থাকা প্রেমিক বেটার পকেটের ওপর স্টিম রোলার চালানো। ক্যাম্পাসের বাইকওয়ালা ছেলেরা এদের কাছে সবসময় অগ্রাধিকার পায় প্রেমের ক্ষেত্রে

হাই হিল প্রেমিকা : এদের ধারণা, এরা খাটো না হয়ে আরেকটু লম্বা হলেই একেবারে খাপে খাপ দীপিকা পাড়ূকোনের মতো লাগত। তাই হাই হিল পরে লম্বা হওয়ার চেষ্টা করে। তবে কেউ জিজ্ঞেস করলে সহজ উত্তর, হাই হিল তার অনেক পছন্দের অন্য কোনো কারণ নেই। এদের বয়ফ্রেন্ডরাও ডেটিংয়ে গেলে বিরক্ত হয় হাই হিল দেখে।

জাতীয় প্রেমিকা : আপনি এদের সম্পর্কে এত কাহিনী শুনবেন যে, আসলে এরা সত্যিকারে কার প্রেমিকা, তাই জানতে পারবেন না। তবে সব যে শুনবেন তা নয়, যদুর সঙ্গে লাইব্রেরিতে, মধুর সঙ্গে জামরুল তলায় আর গেদুর সঙ্গে প্রেমতলায় দেখে আপনার সেই ধারণা পাকাপোক্ত হয়ে যাবে। আর আপনি মুখে মুখে তাকে খারাপ আখ্যা দিলেও রাতে ফেসবুকে 'হাই' দিয়ে কয়েক ঘণ্টা বসে থেকে রিপ্লাই না পেয়ে বলবেন আসলেই খারাপ।

স্বৈরাচারী প্রেমিকা : বন্দুকের গুলি মিস হতে পারে কিন্তু প্রেমিকরা এদের কোনো কথাই মিস করতে পারবে না, করার ক্ষমতা রাখে না। যখন যা বলবে প্রেমিক বেচারা সেটা করতে বাধ্য থাকবে। জীবনে যে ছেলের গলা দিয়ে কোনো মিঁয়াও আওয়াজও বের হয়নি, রাত বারোটার পর সেই ছেলেকে দিয়ে বেসুরো গলায় গান পর্যন্ত গাওয়ায় এরা। ফোনে অর্ডার করামাত্র গেটের সামনে নাশতা নিয়ে হাজির হতে হয় এদের প্রেমিকদের। গোসলখানায় ঢুকে হঠাৎ মনে হয় শ্যাম্পুর সঙ্গে কন্ডিশনারটাতো কেনা হয়নি, মাত্র একটা ফোনে চিলের মতো ছোঁ মেরে সেটা নিয়ে হাজির হয়ে যায় এই স্বৈরাচারী প্রেমিকার শাসনে থাকা প্রেমিক।

উলে বাবুতা টাইপ প্রেমিকা : বাংলা ভাষা আহত হয়েছে সিলেটে এবং নিহত হয়েছে চট্টগ্রামে। আর বাংলা ভাষা বাচ্চামিত্ব পেয়েছে এই উলে বাবুতা টাইপ প্রেমিকাদের কাছে। এদের প্রিয় বর্ণ 'ল'। কী কলে বাবুতা, গুলু গুলু সোনাতা ভাত খাইছে, আমাল বেইবিতা চলো আমলা বেল হই টাইপ বাক্য কেবল এদের কাছেই শুনতে পাবেন। বাংলা একাডেমি হয়তো শিগগিরই এ ধরনের শব্দকোষ নিয়ে 'উলে বাবুতা টু বাংলা' এ ধরনের অভিধান বের করবে বলে আশা রাখি।

আম্মু বকা দেবে টাইপ প্রেমিকা : ক্যাম্পাসে যত ছেলেই প্রোপোজ করবে তার একটাই উত্তর সে পরিবারের সিদ্ধান্তে বিয়ে করবে। এসব প্রেমটেম করে পরিবারকে কষ্ট দিতে পারবে না। প্রেম করবে সে কিন্তু প্রপোজ দিতে বলে পরিবারে গিয়ে তার আম্মুকে বোঝেন অবস্থা! তারপর ভাদ্র মাসের পূর্ণিমা তিথির কোনো এক মধ্যরাতে হলের ছাদের এক কোণে তাকেও ফোনে কথা বলতে দেখা যায়, তবে সেটা সেই ঝলসানো চাঁদ আর তার প্রেমিক চাঁদ ছাড়া কেউই জানে না।

বখে যাওয়া প্রেমিকা : এদের সংখ্যা খুবই নগণ্য। চেহারা পুরাই ক্রাশিং। চলনে-বলনে সবার ভালো লাগার মতো। কিন্তু প্রেম করে একটা মদন টাইপ পাতলা খানের সঙ্গে। ক্যাম্পাসের বাকি নাদুসনুদুস মোটাতাজা নিজেকে নায়ক ভাবা প্রেমিক সম্প্রদায় এটা দেখে কেবল আফসোস করে আর মেয়ের পছন্দকে ধিক্কার জানায়। এ জন্যই ঠাকুমা ছোটবেলায় বলতেন, গাছের সবচেয়ে মিষ্টি ফলটা কাউয়ায়ই খেয়ে যায়।

রাজীব নন্দী
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

এমএসেল 

Loading...

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।