কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে লাগবেনা টাকা, উল্টো টাকা দেয়া হবে


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2019-01-11 13:42:03 BdST | Updated: 2019-01-24 13:40:35 BdST

কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়লে কোনও টাকা তো লাগবেই না, উল্টে মিলবে স্কলারশিপ। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়লে কলা বিভাগের ছাত্রীরা দু'হাজার টাকা এবং বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রীরা আড়াই হাজারা টাকা করে পাবেন।

কৃষ্ণনগরে কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের সূচনা লগ্নে এ কথাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৃহস্পতিবার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন লেখা বোর্ডের সুইচ টিপে মুখ্যমন্ত্রী কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের সূচনার কথা ঘোষণা করতেই হাততালিতে ভরিয়ে দিয়েছিলেন সভায় উপস্থিত স্কুল-কলেজের ছাত্রীরা। তা শুনে মুখ্যমন্ত্রী নিজেই এর পর যোগ করলেন, 'ছেলেরা ভাবতেই পারে আমরা কী পাব?' পরের মুহূর্তেই তাঁর ঘোষণা, 'হরিচাঁদ-গুরুচাঁদের নামে গাইঘাটায় যে বিশ্ববিদ্যালয় হতে চলেছে, তার একটা ক্যাম্পাস গড়া হবে কৃষ্ণনগরে।' এ বার সভা ছাপিয়ে গেল ছাত্রদের হাততালিতে।

কৃষ্ণনগর সরকারি কলেজ মাঠে এ দিন যেখানে মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি সভা চলছিল, সেই মাঠের লাগোয়া অংশেই কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় হবে বলে জানা গিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এ দিন তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই বেশ আবেগতাড়িত হয়ে কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের সূচনার কথা ঘোষণা করে বলেন, 'ভীষণ গর্বের ব্যাপার। এখানে পড়তে গেলে কোনও টাকা লাগবে না।' কেন লাগবে না বোঝাতে গিয়ে তিনি বলেন, 'আগে বছরে দেড় লক্ষ টাকা পারিবারিক আয়ের ছাত্রীরা কন্যাশ্রীর সুবিধা পেত । কন্যাশ্রী এখন সরকারি স্কুলে পড়া সব ছাত্রীই। বিশ্ববিদ্যালয়ে কলা বিভাগে পড়া ছাত্রীরা দু'হাজার টাকা এবং বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রীরা আড়াই হাজার টাকা করে স্কলারশিপ পাবে।'

.

নবদ্বীপের একটি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিজনকুমার সাহা জানান, 'কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়টি জেলার দক্ষিণ সীমানায় অবস্থিত বলে এ জেলার এবং লাগোয়া মুর্শিদাবাদের গ্রামীণ এলাকার ছাত্রীদের কারও কারও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হচ্ছিল না। এ বার সেই অভাব পূরণ হল।'

কৃষ্ণনগরের একটি বিএড কলেজের ছাত্রী অনিন্দিতা সাহা বলেন, 'খুবই আনন্দের খবর।' কৃষ্ণনগর সরকারি কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী বিদিশা চৌধুরীর মতে, 'কন্যাশ্রী যখন একটা নামি ব্যান্ডে পরিণত হয়েছে, সে সময়ই কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় এই শহরে হওয়ার খবরে আমরা খুবই খুশি।'

তবে এই শহরেরই কিছু মানুষ আবার দাবি তুলেছেন কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের জায়গাটি বদল হোক। শহরের ফুসফুস এই মাঠে যাতে বিশ্ববিদ্যালয় গড়া না হয় সেই দাবি জানিয়ে পোস্টারও লাগিয়েছেন তাঁরা। এ দিন একই মঞ্চ থেকে কৃষ্ণনগর আইটি পার্কের উদ্বোধনও করেন মুখ্যমন্ত্রী। ৬ একর জমিতে গড়া হয়েছে এই আইটি পার্ক। এখানে ৫৫টি মডিউলের মধ্যে ২৮টি ইতিমধ্যেই ৯টি কোম্পানির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।