শিক্ষক না থাকায় ব্যহত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পঠনপাঠন


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2019-02-23 00:36:04 BdST | Updated: 2019-09-19 15:34:40 BdST

পর্যাপ্ত শিক্ষক নেই তাই মার খাচ্ছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কলেজের পঠনপাঠন। মাসের পর মাস চলছে এই পরিস্থিতি। মুশকিল আসানের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রায় ৪০০ বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষক নিয়োগের পথে হাঁটছেন।

সূত্রের খবর, প্রথম পর্যায়ে নেওয়া হবে প্রায় ২৪০ জন শিক্ষক। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, সম্প্রতি প্রথম পর্যায়ের বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে। ১৫ মার্চের মধ্যে তাদের আবেদন করতে হবে। কলা বিজ্ঞান এবং বাণিজ্য প্রভৃতি বিভাগের বিভিন্ন শাখায় তাঁদের নিয়োগ করা হবে। শীঘ্রই দেওয়া হবে দ্বিতীয় পর্যায়ের বিজ্ঞাপন।কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন পর্যায়ে শিক্ষকের পদ সংখ্যা প্রায় ৮০০। দীর্ঘদিন ধরে বড় মাপের নিয়োগ হয়নি। অনেকে অবসর নিয়েছেন। অনেকে কাজ ছেড়ে অন্যত্র চলে গিয়েছেন। ফলে শূন্য পদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তাহলে এতদিন কেন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি শূন্যপদ পূরণের? প্রশ্নের জবাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক আধিকারিক বলেন, আমরা নানা সময় উদ্যোগী হয়েছিলাম। কিন্তু ঠিক যে রকম মানের শিক্ষক চাই, তা পাইনি।

২০১০ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২২৮ জন শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞাপন দিয়েছিল। আবেদন জমা পড়েছিল প্রায় ২০০ জনের। কিন্তু তা সত্ত্বেও ২০১০ থেকে ২০১৭-র মধ্যে ৪০ জনের বেশি জনকে নিয়োগ করা হয়নি। শিক্ষকদের তরফে এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের আগ্রহের অভাবের অভিযোগ করা হয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, এ কারণে মার খাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ও কৌলিন্য।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।