স্পর্শকাতর দাঁতের সমস্যা সমাধানের ৬ টি উপায়


স্বাস্থ্য ডেস্ক:
Published: 2017-03-02 17:54:59 BdST | Updated: 2018-05-27 01:39:46 BdST

দাঁত ভালো রাখার সবচেয়ে ভালো উপায় নিয়মিত ব্রাশ ও ফ্লস করা
ডেইলিমেইলবিডি ডট কম:
ঢাকা: কানাডিয়ান ডেন্টাল এসোসিয়েশন এর ডেন্টাল প্রোগ্রাম ব্যবস্থাপক ডা. ইউয়ান সোয়ান বলেন, দাঁতের উপরের শক্ত অংশ বা এনামেল ক্ষয় হয়ে গেলে এর নীচের স্তর ডেন্টিনের আণুবীক্ষণিক ছিদ্রগুলো (টিউবিউলস) উন্মুক্ত হয়ে যায় এবং এর মাধ্যমে ঠান্ডা, গরম, মিষ্টি বা এসিডিক খাবার গ্রহণ করলেই তা স্নায়ু এবং দাঁতের ভেতরের কোষকে উদ্দীপিত করে বলে তীব্র যন্ত্রণা হয়। কিন্তু খুব সহজেই এই সাধারণ সমস্যাটি থেকে মুক্ত হওয়া যায়। সংবেদনশীল দাঁতের সমস্যা সমাধানে সাহায্য করে যে ৬ টি উপায় সেগুলোর বিষয়েই জানবো আজ।

১। সংবেদনশীল দাঁতের জন্য তৈরি টুথপেস্ট ব্যবহার করুন

আমরা বিজ্ঞাপনের শেষে দেখি যে মানুষ খুব সুখী মুখে আইসক্রিমের কোনে কামড় দিচ্ছে। এই পণ্যগুলো কীভাবে কাজ করে সে বিষয়ে পেশাদারদের কাছ থেকে শুনে নেয়া ভালো। সোয়ান বলেন, সংবেদনরোধী টুথপেস্টের মধ্যে এমন উপাদান থাকে যা সংবেদনশীল দাঁতের উপরিভাগ থেকে দাঁতের ভেতরের স্নায়ু পর্যন্ত অনুভূতি পৌঁছাতে বাধা দেয়। বেশীর ভাগ মানুষই এ ধরনের টুথপেস্ট ব্যবহারের পর ১ সপ্তাহ থেকে ১০ দিনের মধ্যে পার্থক্য দেখতে পান।

২। নরম তন্তুর টুথব্রাশ ব্যবহার করুন

আপনি নিশ্চয়ই আপনার দাঁতের সুরক্ষা স্তরটিকে যতটুকু সম্ভব শক্তিশালী রাখতে চান। তাহলে একটি নোংরা পাত্রকে পরিষ্কার করার জন্য আপনি যেভাবে ঘষা মাজা করেন সেভাবে দাঁত মাজা শুরু করবেন না। দাঁত ও মাড়ির ক্ষতি করা ছাড়া দাঁত পরিষ্কারের জন্য সফট ব্রিসল ব্রাশ বা নরম তন্তুর ব্রাশ ব্যবহার করার পরামর্শ দেয়া হয়।

৩। ফ্লোরাইড যুক্ত দাঁতের পণ্য ব্যবহার করুন

দাঁতের সমস্যা সমাধানে সত্যিকারভাবেই কাজ করে ফ্লোরাইড। সোয়ান ব্যাখ্যা করে বলেন, ফ্লোরাইড দাঁতের খনিজের পুনঃস্থাপন বা দাঁতকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করে যা ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সৃষ্ট এসিডের কারণে নষ্ট হয়। তাই ফ্লোরাইড সমৃদ্ধ টুথপেস্ট ব্যবহার করুন।

৪। এসিডিক খাবার ও পানীয় গ্রহণ সীমিত করুন

আপনার খাদ্যের পরিবর্তন করুন, বিশেষ করে এসিডিক খাবার আপনার দাঁতের ব্যথাকে বৃদ্ধি করবে। এসিডিক খাবার ও পানীয় দাঁতের ক্ষয় এবং দাঁতের সংবেদনশীলতায় অবদান রাখে – বলেন সোয়ান। তিনি সফট ড্রিংক, সাইট্রাস ফলের জুস ইত্যাদি পানীয়গুলোকে সীমিত পরিমাণে গ্রহণের পরামর্শ দেন।

৫। নাইট গার্ড ব্যবহার করুন

হালকা মাথাব্যথা বা মাড়ি ব্যথার জন্য আপনার ঘুম ভেঙ্গে যেতে পারে। দীর্ঘ সময় যাবৎ ঘুমিয়ে থাকলেও দাঁতের ক্ষতি হয়। দীর্ঘ সময় ধরে দাঁত কিড়মিড় করলে ও দাঁত সংবেদনশীল হয়ে যায়। এই ক্ষতিকর সমস্যা থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য একটি সহজ সমাধান আছে আর তা হল মাউথ গার্ড ব্যবহার করা। আপনার ডেন্টিস্ট এর কাছ থেকে আপনি এটি নিতে পারেন ঘুমের সময় ব্যবহারের জন্য।

৬। মুখের যত্ন নিন

মুখের যত্নের বিষয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করা ও ফ্লস করা এবং ডেন্টিস্টের কাছে যাওয়ার বিষয়টি খুবই সাধারণ মনে হলেও এটিই সবচেয়ে ভালো উপায় দাঁত ভালো রাখার।

কিন্তু আপনি যদি মনে করেন যে, দাঁতের যত্ন ঠিকমত নেয়ার পর ও আপনি ঠান্ডা বা মুচমুচে খাবার খাওয়া উপভোগ করতে পারছেন না। তাহলে একজন বিশেষজ্ঞ দন্ত চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করাটা জরুরী। তিনি আপনার সমস্যাটির মূল কারণ নির্ণয়ের মাধ্যমে এর নিরাময়ের ব্যবস্থা করতে পারবেন।

সূত্র : বেস্ট হেলথ ম্যাগ

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।