কর্মবিরতিতে বিভিন্ন মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা


জেলা সংবাদদাতা:
Published: 2017-03-04 22:19:44 BdST | Updated: 2018-08-21 10:18:57 BdST

দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন
ডেইলিমেইলবিডি ডট কম:
বগুড়া: বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার ইন্টার্ন (শিক্ষানবিশ) চিকিৎসকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিবাদে বিভিন্ন মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কর্মবিরতিতে নেমেছেন।

৪ মার্চ শনিবার বগুড়ার পাশাপাশি দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ, খুলনা মেডিকেল কলেজ, সিরাজগঞ্জের নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ, রংপুর মেডিকেল কলেজ, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ, সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ এবং বেসরকারি তিন হাসপাতাল নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ, রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কর্মবিরতিতে গেছেন।

৩ মার্চ বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চার ইন্টার্ন চিকিৎসকের শাস্তি ঘোষণা করে। পরে সেদিন দুপুরের পর থেকে বগুড়া মেডিকেলের কোনো ইন্টার্ন চিকিৎসক হাসপাতালে কাজ করেননি। তবে সেসময় ওই কর্মবিরতির জন্য কোনো ঘোষণাও দেননি।

কিন্তু ৪ মার্চ শনিবার সকালে বগুড়া মেডিকেল কলেজের প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধনে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে কর্মবিরিতির ঘোষণা দেন।

বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি মারধরের শিকার হন সিরাজগঞ্জ সদর থেকে চিকিৎসা নিতে আসা আলাউদ্দিন সরকার নামে এক রোগীর ছেলে রউফ সরকার। পরে ২০ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ভোরে স্বজনদের সঙ্গে বিরোধের জেরে ওই হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ধর্মঘটের কবলে পড়া সেই রোগী মারা যান। এই ঘটনার পর শিক্ষানবিশ চিকিৎসকরা নিজেদের নিরাপত্তার দাবিতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ঘোষণা দেন। এর ২৭ ঘণ্টা পর তারা কর্মবিরতি তুলে নিলেও রোগী ও স্বজনদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

পরে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়। ওই কমিটি তাদের প্রতিবেদনে চার শিক্ষানবিশ চিকিৎসককে চিহ্নিত করে ব‌্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ওই প্রতিবেদনে চারজনের ইন্টার্নশিপ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়। ছয় মাস পরে তাদের চারজনকে অন্য চারটি প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্ন করতে বলা হয়। এরপর থেকে প্রতিষ্ঠানটির ইন্টার্ন চিকিৎসকরা অঘোষিত কর্মবিরতি পালন করছিলেন। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসে শনিবার।

এই কর্মসূচিকে সমর্থন জানিয়ে ৪ মার্চ শনিবার সকালে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মানববন্ধনে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ৭২ ঘণ্টার কর্মবিরতি শুরুর ঘোষণা দেন।

বগুড়া মেডিকেলের ওই চিকিৎসকদের সমর্থনে খুলনার ইন্টার্ন চিকিৎসকরা দুপুর থেকে কর্মবিরতি শুরু করেছেন। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) খুলনার সভাপতি ডা. শেখ বাহারুল আলম বলেন, প্রশাসন রোগী ও চিকিৎসককে মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিচ্ছে। এভাবে চিকিৎসা ব্যবস্থা চালিয়ে নেওয়া কঠিন। এ কারণে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ধর্মঘট করতে বাধ্য হচ্ছেন।

এদিকে ধর্মঘটের কারণে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা ব্যাহত হওয়ার অভিযোগ করেছেন রোগীরা।

সিরাজগঞ্জের নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজে দুপুরে মানববন্ধনের পর কর্মবিরতি শুরু হয়। সিরাজগঞ্জে নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজে মানববন্ধন সিরাজগঞ্জে নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজে মানববন্ধন এ কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. আশরাফুল ইসলাম শুভ্রর সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বলা হয়, শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে, সে জন্য সরকার একপেশে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারই প্রতিবাদে তারা মাঠে নেমেছেন।

তারা বগুড়ার চার ইন্টার্ন চিকিৎসকের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারসহ নিরাপদ কর্মস্থলের দাবিতে আগামী ৭২ ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করবেন। পরবর্তীতে কেন্দ্রের ঘোষিত কর্মসূচি সফল করতে মাঠে থাকবেন বলে তারা জানিয়েছেন।

রাজশাহী মেডিকেলে কর্মবিরতি শুরু ৮টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে সকাল ৮টার দিকে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা মানববন্ধন করে কর্মবিরতির ঘোষণা দেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের মুখপাত্র আবু রায়হান সাংবাদিকদের বলেন, বগুড়ার চার ইন্টার্ন চিকিৎসকের শাস্তি মওকুফ করে কর্মস্থলে বহালের দাবিতে ‘সারা দেশে’ ইন্টার্নদের যে কর্মবিরতির কমসূচি ঘোষণা করা হয়েছে তাতে একাত্মতা প্রকাশ করা হয়েছে।

শনিবার সকাল আটটা থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কর্মবিরতিসহ হাসপাতালের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন।

রংপুর ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ফারহান রহমান বলেন, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের চার ইন্টার্ন চিকিৎসকের শাস্তি প্রত্যাহারসহ তাদের নিজেদের কর্মস্থলে বহাল রাখার দাবিতে তারা এই কর্মসূচি পালন করছেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।