ইবিতে শুরু হচ্ছে আইসিএসডিএপি’র আন্তর্জাতিক সম্মেলন


আহসান নাঈম
Published: 2019-09-13 14:01:42 BdST | Updated: 2019-10-15 06:03:56 BdST

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় আন্তর্জাতিক জোট আইসিএসডিএপি’র সপ্তম দ্বি-বার্ষিকী সম্মেলন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) এবং আইসিএসডি, অস্ট্রেলিয়া এর যৌথ আয়োজনে ১৪ সেপ্টেম্বর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে দু’দিনব্যাপী এ সম্মেলন শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বীর শ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে সম্মেলনটি চলবে ১৫ সেপ্টেম্বর পযর্ন্ত।

জানা যায়, সম্মেলনে এশিয়া, ইউরোপ ও অস্ট্রেলিয়া মহাদেশের ৮ দেশের শতাধিক সামাজিক উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ ও গবেষক অংশগ্রহন করবেন। সম্মেলনের সহযোগী আয়োজক সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটি অব সোস্যাল সায়েন্স এবং থাইল্যান্ডের থাম্মাসাট বিশ্ববিদ্যালয়। এর আগে আন্তর্জাতিক এই জোটের ষষ্ঠ দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় সিঙ্গাপুরে।

সামাজিক অস্থিরতার মাধ্যমে সৃষ্ট পরিস্থিতি মোকাবেলা করে শান্তির পথনির্দেশ করা এবং শান্তি ও উন্নয়নের জন্য ভবিষ্যত সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করাই এই সম্মেলনের লক্ষ্য। চলমান বৈশ্বিক সামাজিক সঙ্কট হতে উত্তরণের পথ খুঁজতে এসব বিষয়ের উপর গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হবে এই সম্মেলনে।

সম্মেলনে সমাজতত্ত্ববিদ ও গবেষকগণ চলমান বিশ্বের গৃহযুদ্ধ, শরণার্থী ও সামাজিক অস্থিরতা, অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং শান্তি ও উন্নয়নের ওপর প্রভাব, জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং সামাজিক অস্থিরতা, বিশ্বায়ন, অভিবাসন এবং শান্তি ও উন্নয়নের পথে চ্যালেঞ্জ, লিঙ্গ বৈষম্য, সহিংসতা, শান্তি এবং উন্নয়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং শান্তি ও উন্নয়নের পরিবেশ, শান্তি, শিক্ষা, সামাজিক উদ্যোগ ও টেকসই উন্নয়নের ওপর আলোকপাত করবেন।

এছাড়াও সামাজিক অস্থিরতা, শান্তি এবং রাজনৈতিক প্রক্রিয়া, দ্বন্দ্ব নিরসন, শান্তি ও উন্নয়নে এনজিও, সামাজিক অস্থিরতা দূরীকরণ, স্থানীয় ও জাতীয় উন্নয়নের মাধ্যমে শান্তি প্রতিষ্ঠায় যুব সমাজের ভূমিকা, জাতি-ধার্মিকতা, সামাজিক অস্থিরতা, শান্তি ও উন্নয়ন, আন্তর্জাতিক আদালতে দ্বন্দ নিরসন, শান্তি ও উন্নয়ন, টেকসই উন্নয়ন অর্জনে ব্যবসায়িক-সামাজিক দায়িত্ববোধের ওপর আলোকপাত করবেন সমাজতত্ত্ববিদ, উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ ও গবেষকগণ।

সম্মেলনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী এবং অপর দুই পৃষ্ঠপোষক উপ-উপাচার্য ও সমাজকল্যাণ বিভাগরে সভাপতি অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান এবং অস্ট্রেলিয়ার চার্লস স্টুয়ার্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ বিভাগরে অধ্যাপক ও আইসএিসডপিরি প্রেসিডেন্ট ড. মানোহর পাওয়ার।