যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় দিবস আজ


এম মোসাব্বির হোসাইন
Published: 2018-01-25 10:32:32 BdST | Updated: 2021-01-20 17:12:51 BdST

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) দিবস আজ। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমা লের বৃহত্তর যশোর জেলার প্রথম ও একমাত্র পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় যবিপ্রবি দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় ১১ বছরে পা দিয়েছে। একইসঙ্গে আজ ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত সকল শিক্ষার্থীদের নবীন-বরণ অনুষ্ঠানও হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদ্যাপন অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৭টায় জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। এছাড়াও অনুষ্ঠানমালার মধ্যে রয়েছে- বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে স্বাধীনতা সরণি সড়ক হয়ে একাডেমিক ভবন পর্যন্ত আনন্দ র‌্যালী, দুপুর ১২টায় বিশ্বাবিদ্যালয়ের জন্মদিনের কেক কাটা এবং পিঠা উৎসবের শুভ উদ্বোধন, দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রধান অতিথি ও নবীন শিক্ষার্থীদের আসন গ্রহণ, ফুল দিয়ে বরণ এবং ওরিয়েন্টেশন কিট বিতরণ, দুপুর একটায় নবীন ছাত্র-ছাত্রীদের পরিচিতি পর্ব ও আলোচনা সভা। দ্বিতীয় পর্ব শুরু বিকাল সাড়ে তিনটা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং কনসার্ট। সন্ধ্যার পরে জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী বাপ্পা মজুমদার, মোল্লা বাবু, নাজু আকন্দ এবং সিলভী গান গাইবেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস ও নবীন-বরণ অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে থাকবে ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা দপ্তর।

উচ্চ শিক্ষার মাধ্যমে আধুনিক জ্ঞান চর্চা ও গবেষণার সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে ২০০৭ সালের ২৫ জানুয়ারি যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের সাজিয়ালী মৌজার আমবটতলা নামক স্থানে ৩৫ একর জায়গা জুড়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হয়। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল প্রশাসনিক কার্যক্রম যশোর শহরের ধর্মতলাস্থ ‘বৃষ্টি মহল’ নামের একটি ভাড়া বাড়ি হতে পরিচালিত হতে থাকে। এ ভাড়া বাড়িতেই ২০০৯ সালে ২০০৮-০৯ শিক্ষাবর্ষে ‘কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল’, ‘পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি’, ‘অণুজীব বিজ্ঞান’ এবং ‘ফিশারীজ অ্যান্ড মেরিন বায়োসায়েন্স’ বিভাগে ২০০ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়। একই বছর ভর্তিকৃত ২০০ জন শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রম মূল ক্যাম্পাসে শুরু হয়। পরবর্তীতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ সালের ২৭ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ক্যাম্পাসের শুভ উদ্বোধন করেন।

বর্তমানে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে সাতটি অনুষদের অধীনে মোট ২২টি বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে প্রায় চার হজার ৩৩৬ জন শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত। বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক মিলিয়ে মোট শিক্ষক সংখ্যা আছেন ১৯২ জন। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন শ্রেণির ৭৬ জন কর্মকর্তা এবং ১৫৮ জন কর্মচারী কর্মরত আছেন।

টিআই/ ২৫ জানুয়ারি ২০১৮