প্রতারণার অভিযোগে ইবি কর্মকর্তা কারাগারে


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-05-19 18:33:57 BdST | Updated: 2018-10-18 14:24:16 BdST

নড়াইল আদালত প্রতারণার অভিযোগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। ওই কর্মকর্তার নাম আলমগীর হোসেন খান। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ জিয়াউর রহমান হলের উপ-রেজিস্ট্রার হিসেবে কর্মরত। তার গ্রামের বাড়ি পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায়।

গত বৃহস্পতিবার নড়াইলের লস্করপুর গ্রামের দুই যুবককে বিদেশে পাঠাতে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগের মামলায় হাজিরা দিতে গেলে তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান বিচারক জাহিদুল আজাদ।

মামলার বিবরণী থেকে জানা গেছে, নড়াইল সদর উপজেলার আউড়িয়া ইউনিয়ানের লস্করপুর গ্রামের অহিদুজ্জামান এবং বাগবাড়ি গ্রামের শাহিদুল ইসলামের সঙ্গে আলমগীর খানের পূর্ব থেকে পরিচয় ছিল। দুইজনকে সিঙ্গাপুর পাঠানোর কথা বলে ২০১৭ সালের ৫ জানুয়ারি স্ট্যাম্পে লিখিত চুক্তির মাধ্যমে ১০ লাখ টাকা নেন তিনি।

ছয় মাসের মধ্যে তাদেরকে সিঙ্গাপুর পাঠানোর বিষয়ে চূড়ান্ত কথা দেন। সে অনুযায়ী তাদের দুজনকে পাসপোর্ট করে দেন। পাসপোর্ট হাতে পেয়ে আলমগীরের ওপর তাদের বিশ্বাস বেড়ে যায়। কিন্তু ৬ মাস পার হওয়ার পরে আলমগীর তাদের সঙ্গে টালবাহনা করতে থাকেন। এতে তাদের সন্দেহ তৈরি হয়। টাকা ফেরত চাইলে গড়িমসি শুরু করে দেন আলমগীর।

নিরুপায় হয়ে ২০১৭ সালের ২৮ নভেম্বর লিখিত স্ট্যাম্পের চুক্তিনামা দেখিয়ে শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে নড়াইল সদর আদালতে প্রতারণার অভিযোগে মামলা করেন।

আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আলমগীরের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। সমন পেয়ে বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন তিনি। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। এ বিষয়ে খোঁজখরব নেব এবং কর্তৃপক্ষে সঙ্গে আলোচনা করে তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেব।

এসএম/ ১৯ মে ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।