আবরার হত্যা: শামীম বিল্লাহ ও মোয়াজ ৫ দিনের রিমান্ডে


টাইমস ডেস্ক
Published: 2019-10-13 21:42:06 BdST | Updated: 2019-11-20 11:31:01 BdST

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার শামীম বিল্লাহ ও মোয়াজের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার (১৩ অক্টোবর) তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর মামুনুর রশিদ তাদের পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেওয়ার জেরে বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে ৬ অক্টোবর রাতে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর রাত ৩টার দিকে শেরেবাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির করিডোর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

৭ অক্টোবর দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে আবরারের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ লাশের ময়নাতদন্ত করে বলেন, ‘আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।’

নিহত আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। এ ঘটনায় আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে চকবাজার থানায় ১৯ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগ।

শুক্রবার বিকেলে সাতক্ষীরা জেলার ভোমরা স্থলবন্দর এলাকা থেকে বুয়েটের মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৭তম ব্যাচের ছাত্র শামীম বিল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ইছাপুর গ্রামের আমিনুর রহমানের ছেলে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শামীম পুলিশকে জানিয়েছেন, সাতক্ষীরা হয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি ছিল তার।

এর আগে সকালে সিলেট থেকে মাজেদুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট (সিটিটিসি)।

এমএন/ ১৩ অক্টোবর ২০১৯