বইমেলায় ঢাবির তরুণদের লেখা বই


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-02-14 22:06:28 BdST | Updated: 2018-10-23 14:37:30 BdST

অমর একুশে গ্রন্থমেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিবছর দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন নতুন বই প্রকাশ করে নিজেদের সাহিত্যিক প্রতিভার জানান দেয়। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এ বছর বইমেলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের বিশটিরও বেশি বই বের হয়েছে। তাদের নতুন বই নিয়ে আমাদের আজকের এই আয়োজন।

জীগল মণ্ডলের বই ‘পার্শ্বচরিত্র’ প্রকাশ করেছে চয়ন প্রকাশন। এটি একটি গল্পগ্রন্থ। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৪৮ নং স্টলে। কথাসাহিত্যে তিনি অসাধারণ নৈপুণ্যতা দেখিয়েছেন। বইটি পড়লেই তা স্পষ্ট হয়।

সুমনা মৃধার বই ‘গহীন মায়া’ প্রকাশ করেছে ইন্তামিন প্রকাশন। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৬৯ নং স্টলে। বর্তমান সমাজের প্রেক্ষাপটকে কেন্দ্র করে লেখা রোমান্টিক উপন্যাস গহীন মায়া।

ফাতেমা তাসনিমের কবিতার বই ‘নীলাম্বরীর নীল কান্না’। কবিতায় তুলে এনেছেন তার কল্পনার জগৎকে। প্রকাশ করেছে জয়তী প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৪৭০-৭১ নং স্টলে।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী আলী আজমের বই ‘ইতিহাস কথা বলে’ প্রকাশ করেছে নব সাহিত্য প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৬২৪ নং স্টলে।

বিশ্ব ধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফয়সাল বিন আশিকের বই ‘বঙ্গবন্ধুর রসবোধ’ প্রকাশ করেছে চর্চাগ্রন্থ প্রকাশনী। বইটিতে লেখক বঙ্গবন্ধুর জীবনের ৪৯ টি ঘটনা অবলম্বনে রচনা করেছেন।

রনো আনোয়ারের বই ‘বিশ্বপাগলের মুক্তি’ প্রকাশ করেছে আলোকায়ন প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৩০৯ নং স্টলে। গভীরভাব ও জীবনবোধের ছাপ ফুটে উঠেছে তার বইয়ের প্রতিটি কবিতায়।

বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী রায়ান নুরের উপন্যাস ‘সরীসৃপের হাসি’ প্রকাশ করেছে বলাকা প্রকাশন। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৬৩৭ নং স্টলে।

ঢাবির মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী প্রবাল কুমার দাস ও মাহবুব রহমানের প্রথম যুগলবন্দি কাব্যগ্রন্থ ‘প্রত্যুত্তরের প্রতীক্ষায় নোটিশবোর্ড’ প্রকাশ করেছে প্রিয়মুখ প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৩৩২-৩৩৩ নং স্টলে। তাদের অধিকাংশ কবিতার বিষয়বস্তু প্রেম।

পরিবার পাবলিকেশন্স প্রকাশ করেছে মাসুমা রুমার প্রথম গল্পগ্রন্থ ‘যে রাতের শেষ নেই’। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ১৫৯ নম্বর স্টলে। এতে মোট ২৬টি গল্প আছে।

বিদ্যানন্দ প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হয়েছে মৃত্তিকা খানের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘অজ্ঞাতনামার পদ্য’। পাওয়া যাচ্ছে ৫৪ নং স্টলে।

আরিফুল ইসলামের গল্পগ্রন্থ ‘আর্গুমেন্টস অব আরজু’ প্রকাশ করেছে বইপোকা প্রকাশনী। এখানে লেখক ইসলামের বিরুদ্ধে আনা ২৬ টা অভিযোগের জবাব গল্পের মাধ্যমে দেয়ার চেষ্টা করেছেন। বইটি পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৩৫০ নাম্বার স্টল সূচিপত্রে।

ইন্তামিন প্রকাশন প্রকাশ করেছে উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী তুফফাহুল জান্নাত মারিয়ার উপন্যাস শূন্য বালুচর। পাওয়া যাচ্ছে বইমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৬৯ নং স্টলে। এতে লেখক নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা ভার্সিটি পড়ুয়া এক ছেলের কাহিনী তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন একাগ্রচিত্তে।

হুসাইন ইমরানের লেখা কাব্যগ্রন্থ ‘অনিঃশেষ’ প্রকাশ করেছে প্রিয়বাংলা প্রকাশন। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৬৫ নং স্টলে।

আরিফ আশরাফের লেখা ‘আলু কাহিনী’ প্রকাশ করেছে ভিন্নচোখ প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৫৮৪নং স্টলে।

মমিনুল ইসলামের লেখা কবিতার বই ‘অব্যক্ত অনুভূতি’ প্রকাশ করেছে ইন্তামিন প্রকাশন। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৬৯ নং স্টলে। তার কিছু অব্যক্ত কথা নিয়ে লেখা রোমান্টিক বই এটি।

তাজওয়ার রিজনের কবিতার বই ‘কবিতা কিংবা মধ্যরাতের প্রলাপ’ প্রকাশ করেছে আবিষ্কার প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৫৯০-৯১ নং স্টলে।

শওকত শাওন এর বই ‘একটা হুতুম হবো’ প্রকাশ করেছে সাহিত্য বিকাশ। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ১৫৬-১৫৭ নং স্টলে।

অসিত দেবনাথ অন্তুর বই ‘নিজস্ব কারাগার’ প্রকাশ করেছে বাংলার প্রকাশন। পাওয়া যাচ্ছে ৬৮ নং স্টলে।

মুহাম্মদ আলী তালহার বই ‘আদর্শ ছাত্রের গুণাবলী: নীতি ও নৈতিকতা’ প্রকাশ করেছে কথামালা প্রকাশন।

আরিয়ান অপূর্ব দাসের বই ‘নাগরিক হেমলকের অবাক মৃত্যুপান’ প্রকাশ করেছে বাংলার প্রকাশ। এতে প্রেম, বিচ্ছেদ, বিদ্রোহ, নাগরিক জীবন, ইশ্বর প্রভৃতি ভাবনার সংমিশ্রণ ঘটিয়েছেন লেখক।

মোঃ জাকারিয়া ইসলামের ‘আহসানের গল্প’ প্রকাশ করেছে অথৈ প্রকাশ।

মুহিব বিন ইসহাক ছোটনের বই ‘বাতায়ন’ পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ২৬১-২৬২ নং স্টলে।

শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলামের কবিতার বই ‘রক্তের কথোপকথন’ প্রকাশ করেছে কবি প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৪৪-৬৪৫ নং স্টলে।

মাস্টার্সের শিক্ষার্থী শাহাদাৎ শাহেদের কিশোর কবিতার বই ‘গুগলের পেটে আঁকা ভূগোলের ম্যাপ’ প্রকাশ করেছে দাঁড়িকমা প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৬৬৬ নং স্টলে।

মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আতিকুর রহমান নাহিদের কাব্যগ্রন্থ ‘বৃষ্টিশূন্য মেঘ’ প্রকাশ করেছে বিভাস প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের ৪৮৩-৪৮৪ নং স্টলে। সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল।

লিখেছেন: জোবায়ের আবদুল্লাহ।

এইচএম/ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।