চিকিৎসকের আচরণে রোগী যেন কষ্ট না পায় : রাষ্ট্রপতি


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-02-20 00:14:43 BdST | Updated: 2018-06-21 15:49:48 BdST

মানুষ অসুস্থ হলে চিকিৎসকের কাছে আসে। সাথে থাকে অনেক আশা আর ভরসা। তাই চিকিৎসকের আচরণে রোগী যাতে কষ্ট না পায় সেদিকে বিশেষভাবে নজর দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

সোমবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) তৃতীয় সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি চিকিৎসকদের উদ্দেশে বলেন, “বাংলার মানুষ চিরকালই অতিথিপরায়ণ। মনে রাখবেন রোগীরা হাসপাতালের অতিথি। ফলে আপনাদের কোনো আচরণে তারা যেন মনে কষ্ট না পান সেদিকে বিশেষ নজর দিবেন।

আবদুল হামিদ বলেন, “আজকাল প্রায়ই পত্রপত্রিকায় দেখা যায় ভুল চিকিৎসা বা অপচিকিৎসার ফলে রোগীরা নানা ধরনের হয়রানির শিকার হচ্ছে। অনেক সময় পরীক্ষা-নিরীক্ষার নামে রোগীদের অনেক বেশি অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে। অনেক রোগীর পক্ষেই এসব ব্যয় মেটানো সম্ভব হয় না। ফলে তারা সঠিক চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তাই অল্প কিছু লোকের অসাধুতার জন্য যাতে চিকিসার মতো মহান পেশার সুনাম নষ্ট না হয় সে ব্যাপারে আপনাদের সজাগ থাকতে হবে।

আমরা জানি চিকিৎসকের তুলনায় আনুপাতিক হারে আমাদের দেশে রোগীর সংখ্যা অনেক বেশি। তারপরও চেষ্টা করতে হবে কেউ যাতে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত না হয়।”

স্বাস্থ্যখাতে বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের কথা তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি চিকিৎসা সেবায় ই-সার্ভিস চালু করা যেতে পারে কিনা সেদিকে সংশ্লিষ্টদের নজর দেওয়ার আহ্বান জানান।

চিকিৎসা শিক্ষা ও গবেষণায় পরিবর্তিত পরিস্থিতি বিবেচনায় রাখার আহ্বান জানিয়ে দেশের বিশ্বদ্যিালয়গুলোর আচার্য আবদুল হামিদ বলেন, “নতুন নতুন রোগের প্রাদুর্ভাবের সাথে সাথে তা জয়ের জন্য চিকিৎসা বিজ্ঞান এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ ও অঞ্চল ভেদে রোগের প্রকৃতি ও ধরণ আলাদা। তাছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে রোগের প্রকার, ধরণ ও প্রকৃতি পরিবর্তন হতে পারে। তা বিবেচনায় রেখে চিকিৎসা শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

সমাবর্তনে সাতজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও চিকিৎসা বিজ্ঞানীকে সম্মানসূচক পিএইচডি দেয়া হয়। এছাড়া শিক্ষাজীবনে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ছয়জনকে 'চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক' দেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত সমাবর্তনে বক্তব্য রাখেন বিএসএমএমইউ'র অবসটেট্রিক্স অ্যান্ড গাইনোকোলজি বিভাগের সাবেক শিক্ষক এ এইচ এম তৌহিদুল আনোয়ার চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, বিএসএমএমইউর উপাচার্য কামরুল হাসান খান।

বিডিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।