ছাত্রলীগের মিছিলে সাধারণ মানুষ হিসেবে অংশ নিতেন শেখ হাসিনা


টাইমস ডেস্ক
Published: 2019-09-28 21:40:09 BdST | Updated: 2019-10-15 06:05:35 BdST

‘‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা হওয়া সত্ত্বেও শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের মিটিং মিছিলে অতি সাধারণ একজন মানুষ হিসেবে অংশ নিতেন। পরনে টাঙ্গাইলের আট পৌরে শাড়ী, সাজসজ্জা ছিল তার অতি সাধারণ।’’

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) নেত্রকোণায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্ম দিন উপলক্ষে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠী হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে তাঁর দেখা শেখ হাসিনাকে এভাবেই বর্ণনা করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা হওয়া সত্ত্বেও তিনি (শেখ হাসিনা) কখনো তার পরিচয় দিতেন না। আমরা সহপাঠীরা তাকে চিনলেও শিক্ষকরা তাকে বঙ্গবন্ধুর কন্যা হিসেবে চিনতেন না। নিজে ছাত্র লীগের কর্মী হলেও অন্য সমমনা ছাত্র সংগঠনের কর্মীদের সাথেও ছিল তার গভীর বন্ধুত্বের সম্পর্ক। ছাত্রলীগের মিটিং মিছিলে অতি সাধারণ একজন মানুষ হিসেবে অংশ নিয়েছেন তিনি। পরনে টাঙ্গাইলের আট পৌরে শাড়ী, সাজসজ্জা ছিল তার অতি সাধারণ। আমরা জানতাম তার বাবা কত বড় মাপের মানুষ, কিন্তু তার কন্যা কি করে অহংকারহীন এবং অতি সাধারণ জীবন যাপন করে। তার অতি সাধারণ জীবন যাপন দেখে সেদিনও আমরা বিস্মিত হয়েছিলাম। তার নেতৃত্বে ২০১৯ সালের বাংলাদেশকে দেখে আজ অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে দেখছে বিশ্ব।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমাদের যে রূপান্তর তা প্রচলিত রূপান্তর নয়, শেখ হাসিনা যে ঘটনাটি ঘটিয়েছেন তা একক এবং একমাত্র। সারা পৃথিবীতে সবার আগে শেখ হাসিনা নিজের দেশের নামের আগে ডিজিটাল দেশ আখ্যায়িত করেছেন। এর এক বছর পর ইংল্যান্ড, ছয় বছর পর ভারত এবং ২০১৬ সালে সারা পৃথিবী। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১১ বছরে প্রযুক্তিতে ৩২৪ বছরের পিছিয়ে পড়া বাংলাদেশকে এডিবির হিসেব অনুযায়ী ইতোমধ্যেই প্রবৃদ্ধি অর্জনে সিংগাপুর, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড এবং ভিয়েতনামকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশকে অগ্রগতির অভাবনীয় জায়গায় উপনীত করেছেন শেখ হাসিনা। বিশ্বে ক্রয়ক্ষমতার দিক থেকে বাংলাদেশকে ৩২তম সক্ষমতা অর্জনকারি দেশে রূপান্তর করেছেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, অগ্রগতির এই ধারা অব্যাহত থাকলে ৪১ সালের বাংলাদেশ হবে উন্নত বাংলাদেশ - বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা। বাংলাদেশের অগ্রগতির অগ্রযাত্রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের ধারণা বিশ্বে আজ এগিয়ে যাওয়ার দৃষ্টান্ত হিসেবে উঠে আসছে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বে এক উন্নয়নের ম্যাজিক। অপ্রতিরোধ্য গতিতে উন্নয়নের বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রজ্ঞাবান দূরদৃষ্টি সম্পন্ন নেতৃত্বের ফসল। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ সৃষ্টি হতো না আর শেখ হাসিনার জন্ম না হলে বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম এগিয়ে নেওয়া সম্ভব হতো না।

শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল্লাহ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য হাবিবা রহমান বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তৃতা করেন র‌্যাব মহাপরিচালক ড. বেনজির আহমেদ।

টিআই/ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯