সিট ফিরে পেলেন ইভা, তদন্ত কমিটি গঠন


শাহরিয়ার আমিন
Published: 2018-01-10 18:07:23 BdST | Updated: 2018-08-21 10:18:30 BdST

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে না যাওয়ার জের ধরে হল থেকে বের করে দেওয়া বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) সেই ছাত্রী আফসানা আহমেদ ইভা এখন নিজের কক্ষে রয়েছেন। পাশাপাশি সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। বুধবার (১০ জানুয়ারি) সাংবাদিকদের দেওয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানান তিনি।

ইভা জানান, আপাতত আমার সিটের সমাধান হয়েছে। আমি চাই আমার সাথে যে ঘটনা ঘটেছে তার সুষ্ঠু তদন্ত হোক। আর এরকম মিথ্যা অভিযোগের ভিত্তিতে কোন শিক্ষার্থীকে যেন লাঞ্ছিত হতে না হয়।

বাকৃবি সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট সাধারণ সম্পাদক ইসরাত জাহান শাপলা বলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে আমরা শঙ্কিত। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চাই এবং দোষীদের শাস্তির আওতায় আনা হোক।

তদন্ত কমিটি গঠন:
এদিকে এনাটমি এন্ড হিস্টোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. নাসরিন সুলতানাকে আহ্বায়ক এবং কৃষি অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রিফাত আরা জান্নাত তমা ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফ্লোরা বেগমকে সদস্য করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্তের রিপোর্ট প্রকাশ করতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ৪ জানুয়ারি ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে বেগম রোকেয়া হলের প্রথম বর্ষের ছাত্রীদের জোরপূর্বক ছাত্রলীগের বিভিন্ন কর্মসূচিতে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় আফসানা আহমেদ ইভাকে ওই কর্মসূচিতে যেতে বললে তিনি যাননি কারণ হিসেবে বলেন যে তিনি ছাত্রলীগ করেন না। এই ঘটনার জের ধরে সোমবার (০৮ জানুয়ারি) রাত ১১ টার দিকে ছাত্রলীগের কর্মী ওয়াহিদা সিনথি, সাদিয়া আফরিন স্বর্ণা, ইলা, শিলা প্রমূখ তাকে হল থেকে বের করে দেয়। পরে হল প্রভোস্ট সাময়িকভাবে রোকেয়া হলের সম্প্রসারিত ভবনে তাকে থাকতে বললে তিনি অস্বীকৃতি জানান।

রাত ৩ টা পর্যন্ত হলের ফটকে অবস্থান করেন এবং সকাল ৮টার দিকে হলের প্রধান ফটকে আমরণ অনশন শুরু করলে সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আতিকুর রহমান খোকন প্রক্টর কার্যালয়ে নিয়ে যান।

দুপুর আড়াইটার দিকে ছাত্রী হলে থাকার দাবিতে আবার হলের প্রধান ফটকে অবস্থান নিলে সাবেক প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টর তাকে তার সিট দিবেন বলে আশ্বাস দিয়ে হলের ভিতরে নিয়ে যান।

এইচজে/ ১০ জানুয়ারি ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।