খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে অ্যাকুয়াপনিক্স পদ্ধতি


শাহরিয়ার আমিন
Published: 2018-02-23 11:29:17 BdST | Updated: 2018-06-22 23:14:05 BdST

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা এবং অপরিকল্পিত নগরায়নের ফলে স্বল্প জমিতে অধিক ফলনের জন্য ক্ষতিকর কীটনাশক সারের প্রয়োগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়া প্রাকৃতিক পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ার কারণে পরিবেশের বিপর্যয় ঘটছে। তাই খাদ্য নিরাপত্তা সৃষ্ট সমস্যা রোধ করে দেশে নিরাপদ খাদ্যের নিশ্চিত করবে অ্যাকুয়াপনিক্স পদ্ধতি। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) দু’দিনব্যাপী অ্যাকুয়াপনিক্স বিষয়ক আন্তর্জাতিক কর্মশালায় এসব তথ্য জানান বক্তারা।

বক্তারা আরোও বলেন, এটি একটি জলবায়ু সহনশীল প্রযুক্তি। বাড়ীর ছাদ ও আঙ্গিনায় এই পদ্ধতির মাধ্যমে জৈব খাদ্য উৎপাদন করে নিজের পরিবার ও সমগ্র জাতিকে নিরাপদ খাদ্য উপহার দেওয়া সম্ভব।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের সম্মেলন কক্ষে বৃহস্পতিবার ওই কর্মশালার উদ্বোধন করা হয়। এতে দেশের এবং বিদেশের প্রায় ৫০ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করেন।

কর্মশালায় অ্যাকুয়াকালচার বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মাহ্ফুজুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. মো. গিয়াস উদ্দিন আহমদ। কর্মশালায় প্রশিক্ষক রয়েছেন অ্যাকুয়াপনিক্সের উদ্ভাবক বাকৃবি মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের অ্যাকুয়াকালচার বিভাগের অধ্যাপক ড. এম. এ. সালাম এবং আমেরিকার লিডিং সাইন্স ইউনিভার্সিটি ও ন্যাশনাল হাওয়াইয়ের অধ্যাপক ড. জি. ভারনন বায়ার্ড।

এসএম/ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।