জাককানইবির শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে মানববন্ধন


সরকার আব্দুল্লাহ তুহিন
Published: 2018-05-15 22:39:23 BdST | Updated: 2018-06-20 12:03:05 BdST

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাককানইবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও রাজনৈতিক নেতাদের কটুক্তির প্রতিবাদে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সামনে আজ মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহণ ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপর স্থানীয় দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদে চলমান আন্দোলনের ২য় দিন গতকাল (সোমবার) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় সংবাদমাধ্যম কর্মীদের সাথে পরিচয় জানাজানি নিয়ে হাতাহাতিতে ২ সাংবাদিক আঘাতপ্রাপ্ত হন। যার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, শিক্ষক সমিতি সহ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিকেলে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সামনে ময়মনসিংহ জেলা সাংবাদিক, ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব, টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন সহ বেশকিছু সাংবাদিক সংগঠন মানববন্ধন করে।

উক্ত মানবববন্ধনে দৈনিক কালের কণ্ঠ ময়মনসিংহ জেলার প্রতিনিধি নিয়ামুল কবীর সজল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক নেতাদের নিয়ে কটুক্তি করেন বলে অভিযোগ উঠে, যার প্রতিবাদে আবারো বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীরা।

এরই প্রেক্ষিতে আজ (মঙ্গলবার) সকাল ১০টায় ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সামনে ১ঘন্টা অবস্থান নিয়ে মানববন্ধন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। সেখানে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মোঃ নজরুল ইসলাম সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি প্রতিনিধি দল বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে ক্যাম্পাসে ফেরত নিয়ে আসে। একই সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়েও অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর একটি স্মারকলিপি দেয়। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাকিব সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি তপন কুমার সরকার ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে সাংবাদিক নিয়ামুল কবীর সজলের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। বিবৃতিতে অনতিবিলম্বে সাংবাদিক সজলকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করার আহ্বান জানান শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, কালেরকন্ঠ’র ময়মনসিংহ প্রতিনিধি নিয়ামুল কবীর সজলের বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে নিজের ভুল স্বীকার করে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে মুঠোফোনে বক্তব্য দেন। যেখানে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করেছেন বলে তিনি জানান।

এমএস/ ১৫ মে ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।