মুহসীন হলে ভিপি পদে এগিয়ে সাদামনের শহিদুল


DU times
Published: 2019-03-08 14:32:21 BdST | Updated: 2019-07-17 19:30:45 BdST

শহিদুল হক শিশির শিশির ভোট আসছে বলেই যে মানুষকে নিয়ে ভাবে এমন নয়।লোক দেখানো কাজ ও পছন্দ করে না, কখোনই করতো না। যা করতো ভালবেসে করতো, নিজের মন থেকে করতো।আর যেই কাজে হাত দেয় তার সর্বোত্তম ফল নিয়ে তবে থামে।প্রত্যেকটা ব্যাচেই এমন একজন থাকে যে সকলকে সংগঠিত করে রাখে,সকলকে নিয়ে ভাল কিছুর চেষ্টা করে, সমাজকে ভাল কিছু দেবার চেষ্টা যার ভিতরে থাকে। নেতৃত্বের গুণাবলী সবার থাকে না। যার থাকে কেবল সেই নেতা হতে পারে। সেই প্রাইমারী থেকে একসাথে পথচলা। ওকে দেখে আসছি সকল কিছুর নেতৃত্বে এগিয়ে আসতে। স্কুল, কলেজে থাকাকালীন সময়ে কাব, স্কাউটস, নাট্যদলে নাটক করা, খেলাধূলাসহ বিভিন্ন সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখতো। এখন আপনি ভাবছেন শিশিরের সম্পর্কে এত তথ্য জেনে আপনি কি করবেন? আপনার অবশ্যই জানা উচিত। কারণ আপনার মূল্যবান ভোট আপনি যাকেতাকে দিতে পারেন না।একজন যোগ্য ব্যাক্তিকে দেয়া উচিত।যে শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করবে, শিক্ষার্থীদের কথা শুনবে, সমস্যা সমাধান করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে।

একজন মানুষের সাংগঠনিক দক্ষতা না থাকলে তাকে নেতা কিভাবে বানাবেন? নেতা বানানোর আগে তার অতীত জেনে নিলে নেতা নির্বাচন করা সহজ হয়। শিশিরকে ভোট দেবার আগে ওর (শিশির) বিশেষ কিছু সাংগঠনিক গুণ আপনাদের জানা দরকার। আশা রাখি আপনাদের কাজে আসবে।

২০১০ সালে বন্ধুদের নিয়ে গড়ে তোলা “ভেদরগঞ্জ বন্ধুপাল রক্তদাতা সংস্থা”। যার মাধ্যমে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ পরীক্ষাসহ এলাকার মানুষকে প্রয়োজনে রক্তের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে প্রতিনিয়ত।

২০১৭ সালে বন্ধুদের নিয়ে গড়ে তোলা “ভেদরগঞ্জ বন্ধুপাল -২০১০” এর মাধ্যমে ঈদুল ফিতরে অসহায় শিশুদের জন্য পোষাকের ব্যবস্থা করা এবং ঈদুল আজহায় অসহায় গরীব মানুষের জন্য দুধ, সেমাই,চিনি, মশলা ও তেলের ব্যবস্থা করা।

সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে ২০১২ সালে বন্ধুদের নিয়ে এলাকা থেকে ২৫ থেকে ৩০ বস্তা শীতবস্ত্র উঠিয়ে সেই শীতবস্ত্র উত্তরবঙ্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। এছাড়াও ২০১৫ সালে ঢাকাস্থ ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রকল্যাণ সংস্থার সাংগঠনিক সম্পাদক থাকাকালীন সময়ে নিজ এলাকায় দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে।

২০১৬ সাল ঢাকাস্থ ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রকল্যাণ সংস্থার ব্যানারে মানবনবন্ধনে অংশগ্রহণ করে।একই বছর সংস্থার পক্ষ থেকে রাঙামাটি – বান্দরবন আনন্দ ভ্রমণে সর্বাত্মক সাহায্য করে। ২০১৭ সালে সংস্থার পক্ষ থেকে সফলভাবে ইফতার ও দোয়া মাহফিলে সম্পন্ন করা।

প্রতি বছর ঢাকাস্থ ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রকল্যাণ সংস্থার সকলকে নিয়ে একুশের প্রথম প্রহরে শহীদের শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক প্রদান করে। ২০১৮ ঢাকাস্থ ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রকল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে মাদক বিরোধী র‍্যালীর আয়োজন করা। ২০১৮ সালে ঢাকাস্থ ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রকল্যাণ সংস্থার আয়োজনে “আনন্দ ভ্রমণ-২০১৮” সাংস্কৃতিক অনুষ্টানে অংশগ্রহণ।

এলাকা ভিত্তিক এই সামাজিক কাজের কথা হয়তো অনেকেই জানেন না কিন্ত যারা ভার্সিটির বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনে আছেন তারা ঠিকই জানেন ও শিক্ষার্থীদের জন্য কতটুকু ভাবে। শিশির প্রভাতফেরী সাংস্কৃতিক সংসদের বর্তমান সভাপতি, এম আই এস অব মুহসীন হলের সভাপতি এবং কীর্তিনাশার সাবেক সফল সভাপতি।

কীর্তিনাশার সভাপতি থাকাকালীন সময়ে বনভোজনের আয়োজন, ভর্তি-ইচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য ভার্সিটিতে সহয়তা কেন্দ্র স্থাপন এবং নতুন ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনার ব্যবস্থা করে।

প্রভাতফেরীর দায়িত্ব নেবার অল্প কয়েক দিনের মাথায় “ভালবাসার ফাল্গুন-১৪২৫” নামে স্বোপার্জিত স্বাধীনতায় সাংস্কৃতিক অনুষ্টানের আয়োজন করে। তার অল্প কিছুদিন পরে একই স্থানে আয়োজন করে “শীতকালীন পিঠা উৎসব”।গিটার এবং বাশি শিক্ষার কোর্সও শুরু হয়।

এম আই এস ফ্যামিলি অব মুহসীন হলের সভাপতি হয়ে বনভোজন, নতুন ছাত্রদের সংবর্ধনা দেয়াসহ অসচ্ছল ছাত্রদের বৃত্তি প্রদাণের উদ্যোগ গ্রহন করে, যা এখন প্রক্রিয়াধীন আছে। স্কুল, কলেজ থেকেই ওর রাজনীতির প্রতি একটা আগ্রহ ছিল, সমাজের যেই সমস্যাগুলো দেখি তা সমাধান করার।সেই আগ্রহ থেকেই কলেজে এসে যুক্ত হয়ে এখনো অবধি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

এখন ভোট আপনার আর সেই মূল্যবান ভোট যোগ্য মানুষকে দেবার দায়িত্বও আপনার। ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচনে যোগ্য প্রার্থী হিসেবে শহিদুল হক শিশিরকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে আপনাদের হয়ে কথা বলার সুযোগ করে দেন। ইনশাআল্লাহ আপনাদের ভোট বৃথা যাবে না। ১১ মার্চ সারাদিন শহিদুল হক শিশিরকে (ব্যালট নং ৪) ভোট দিন।

শহিদুল হক শিশির, হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল, ব্যালট নং ৪

মেহেদী হাসান

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।