দুধে ভেজাল শনাক্তকারী ফারুক স্যারের পাশে আছিঃ ভিপি নুর


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-07-12 16:10:56 BdST | Updated: 2019-07-21 15:45:17 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের অধ্যাপক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োমেডিকেল রিসার্স সেন্টারের পরিচালক আ ব ম ফারুক অাহমেদ স্যার পাস্তুরিত দুধ নিয়ে গবেষণায় নেতৃত্ব দিয়েছেন৷

বাজার থেকে নামিদামি ব্রান্ডের মিল্কভিটা, আড়ং, ফার্ম ফ্রেশ, প্রাণ, ইগলু, ইগলু চকোলেট এবং ইগলু ম্যাংগোর পাস্তুরিত দুধ পরীক্ষা করেছেন যার ৭ টি নমুনার সবগুলোতেই মানব চিকিৎসায় ব্যবহৃত অ্যান্টিবায়োটিক লেভোফ্লক্সসিন, অ্যান্টিবায়োটিক সিপ্রোফ্লক্সাসিন এবং অ্যান্টিবায়োটিক এজিথ্রোমাইসিনের উপস্থিতি পেয়েছেন। যা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর ।সংবাদসম্মেলনে তিনি তার গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল তুলে ধরেছেন।
এতে তার উপর চটেছেন অসাধু ব্যবসায়ী ও সিন্ডিকেট। শুধু তাই নয় ;জার্নালে প্রকাশ হওয়ার অাগেই সংবাদমাধ্যমে গবেষণার ফলাফল প্রকাশ, তার গবেষণার স্যাম্পল ঠিক ছিল না, গবেষণায় ভুল ছিলো ইত্যাদি অভিযোগে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াসি উদ্দিন তো তার বিরুদ্ধে অাইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার এক প্রকারের হুমকিই দিয়ছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের চেয়ারম্যান অারও একটু এগিয়ে একেবারে গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছেন, ওই গবেষণার দায় ফার্মেসি বিভাগের নয়৷

বুঝতে পারছেন অসাধু, দুর্নীতিবাজদের সিন্ডিকেট কত বড়!

অসাধু, দুর্নীতিবাজরা যতই প্রভাবশালী, শক্তিশালী হোক সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে লড়তে অামরা 'ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ' ফারুক স্যারের পাশে অাছি।
খাদ্যে ভেজাল, দুর্নীতি, অন্যায়-অনিয়ম রুখতে ফারুক স্যারদের পাশে থাকতে হবে।
অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করুন,সৎ-সাহসীদের পক্ষে থাকুন।

লেখকঃ নুরুল হক নুর, ভিপি-ডাকসু

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।