ইবিতে অস্ত্রের মহড়া, ছাত্রলীগ সম্পাদককে ক্যাম্পাস ছাড়া করলো বিদ্রোহীরা


Kustia
Published: 2019-09-20 21:45:30 BdST | Updated: 2019-10-20 16:51:59 BdST

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে ধাওয়া দিয়ে ক্যাম্পাস ছাড়া করেছে শাখা ছাত্রলীগের একাংশের নেতা-কর্মীরা। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সাম্প্রতিক বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রাণনাশের হুমকি দেন। তার প্রতিবাদে আগামীকাল ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের প্রস্ততি নিতে বহিরাগতদের শেল্টারে ক্যাম্পাসে আসে ছাত্রলীগ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম। এসময় রাকিবের সাঙ্গ-পাঙ্গদের সাথে বিদ্রোহী গ্রুপের রাব্বির বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতি হয়। ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়লে প্রত্যেকটি ছাত্র হলে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংগঠিত হয় বিদ্রোহীরা। একপর্যায়ে রাকিব তার সমর্থকসহ জিয়া হল মোড় ছেড়ে প্রধান ফটকে অবস্থান নেন। তবে রাকিবের পক্ষে লালন শাহ হল থেকে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবুল খায়ের মোল্লার নেতৃত্বে একটি গ্রুপ জিয়া হল মোড়ের দিকে আসে। এ সময় চার হল থেকে এক যোগে বিদ্রোহীরা দেশীয় অস্ত্র, হটিস্টিক,রামদা,রড, স্টাম্প নিয়ে জিয়া মোড়ে ওই গ্রুপটির ওপর হামলা চালায়। তবে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যাওয়ায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

একপর্যায়ে সকল হলের বিদ্রোহীরা সশস্ত্র মিছিল নিয়ে জিয়া মোড় থেকে একত্রিত হয়ে প্রধান ফটকে রাকিবকে ধাওয়া দেয়। তবে বিদ্রোহীরা প্রধান ফটকে পৌঁছানোর আগে রাকিব পালিয়ে যায়। পরে বিদ্রোহীরা প্রধান ফটকে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে ক্যাম্পাসে অস্ত্রের মহড়া দেয়।

এবিষয়ে বিদ্রোহী গ্রুপের জুবায়ের আল মাহমুদ বলেন, ‘রাকিব আমাকে ফোনে হুমকি দেয় এবং রাব্বিকে মারধর করে। ফলে সাধারন শিক্ষার্থীরা রাকিবকে ও বহিরাগত সন্ত্রাসীদের ধাওয়া দিয়ে ক্যাম্পাস ছাড়া করে’।

শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম বলেন, আগামীকালের প্রোগ্রামকে সফল করতে আমি ক্যাম্পাসে নেতা-কর্মীদের সাথে আলোচনা করে চলে আসি। তবে শুনেছি আমি চলে আসার পর কে বা কারা ক্যাম্পাসে অস্ত্রের মহড়া দিয়েছে।

তবে উল্লেখিত ঘটনায় পুলিশ এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিরব ভূমিকায় ছিল।

ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আরিফ বলেন, আমরা ফোর্সসহ ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকে ছিলাম। এটাতো ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরীন বিষয়। তাই আমরা ঘটনা পর্যবেক্ষণ করেছি।