'ঢাবিতে আসছে কোম্পানির রিক্সা, ভাড়া থাকবে নির্ধারিত'


www.independentbangla.com
Published: 2017-10-17 20:22:50 BdST | Updated: 2018-11-17 11:40:52 BdST

রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত এই বিশ্ববিদ্যালয়ে নানামুখী সমস্যা, নানা প্রতিকূলতা, ঝুঁকি ও চ্যালেঞ্জ। সম্প্রতি ঢাবির উপাচার্যপুত্র আহত হলেন খোদ ক্যাম্পাসে, পরদিন উপাচার্য ভবনের সামনেই এক মহিলা । এরকম উৎপাত, সংকট ঢাবিতে ঘটছে অনবরত। এইসকল সমস্যার স্বরুপ ও তা উত্তরণের উপায় নিয়ে আলোকপাত করতে ইনডিপেন্ডন্ট বাংলার মুখোমুখী হোন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রোক্টর অধ্যাপক ড. এ এম আমজাদ ।

ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলার পক্ষ থেকে সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন লিপটন ইসলাম ।

ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলা: দেখা যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কাম্পাসে নিয়মিতভাবে যানজট লেগেই আছে এবং প্রায় প্রতিদিনই কোন না কোন একটা দূর্ঘটনার সংবাদ আসছেই। সম্প্রতি, মাননীয় উপাচার্য মহোদয়ের ছেলে আহত হলেন, তার পরদিনই খোদ উপাচার্যের বাসভবনের সামনে আরেক নারী….। বিষয়টিকে আপনারা কীভাবে দেখছেন?

ড. এ এম আমজাদ : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থানটি এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে যে, দেখা যায় যদি কোনো কারণে কখনও ঢাবির রাস্তা বন্ধ থাকে তাহলে পুরো ঢাকা শহরেই তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। আমরা ঢাকা সিটি কর্পোরেশন ও ট্রাফিক পুলিশের সাথে কথা বলেছি। কিন্তু তারাও কোনো সমাধান দিতে পারেন নি।

আর অবশ্যই দূর্ঘটনার বিষয়টি কখনোই পজেটিভ না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি শিক্ষার্থী আমাদের সন্তানের মতোই। আমরা কখনোই চাইবো না যে আমাদের কোন সন্তান দূর্ঘটনার শিকার হোক।

আমরা এর সমাধানে উদ্যোগ গ্রহণ করেছি, ইঞ্জিনিয়ার ডেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের রাস্তাগুলোতে উচ্চতা বাড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে কথা হয়েছে । একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর অনুমদিত গাড়ি ছাড়া আর কোনো যানবাহন
ক্যাম্পাসে চলাচল করতে পারবেনা।

ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলা : ক‍্যাম্পাসের রিক্সা ভাড়ার যে অরাজকতার সৃষ্টি হয়েছে, এই বিষয়ে আপনারা কি কিছু ভেবেছেন?

ড. এ এম আমজাদ : হ্যা, এ বিষয়ে ইতমধ্যে আমাদের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাকে কোনো কোম্পানির অধীনে দিয়ে দেয়া হবে, খুব সম্ভবত। তখন শুধুমাত্র ঐ কোম্পানির রিক্সাই ক‍্যাম্পাসে নির্দিষ্ট ভাড়ায় চলবে।ক‍্যাম্পাসের বিভিন্ন যায়গার ভাড়া নির্দিষ্ট করে দেওয়া হবে। ১৫টি ভাড়ার তালিকা ক‍্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে লাগিয়ে দেওয়া হবে। যদি কোনো রিক্সাচালক নির্দিষ্ট ভাড়ায় যেতে না চায় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলা: বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন (মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণ থেকে বসুনিয়া তোরণ পর্যন্ত) রাস্তায় দেখা যায় অনেক যানবাহন পার্কিং করে রাখা হয়, এ বিষয়ে আপনাদের কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে কী?

ড. এ এম আমজাদ : হ্যা, অবশ্যই এটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। কিছুদিন আগে আপনাদের (ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলার করা একটি নিউজ) এক নিউজের ফলে ঘটনাটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়। এরপর থেকেই আমরা এসব গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু করেছি।

ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলা : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজগুলো কি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠ ও লাইব্রেরী ব‍্যবহার করতে পারবে?

ড. এ এম আমজাদ : না, কখোনই তারা এসব ব‍্যবহার করতে পারবেনা। তারা তো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউই নয়।

ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলা : ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলা পক্ষ থেকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

ড. এ এম আমজাদ : ইনডিপেন্ডেন্ট বাংলাকেও ধন্যবাদ ।

 

এমএসএল 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।