রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য অধ্যাপক বিশ্বজিৎ


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2017-06-11 16:58:27 BdST | Updated: 2019-10-15 06:10:52 BdST

অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

রোববার (১১ জুন) শিক্ষা মন্ত্রণালয় অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষকে আগামী চার বছরের জন্য বিশেষায়িত এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ দিয়ে আদেশ জারি করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় চ্যান্সেলর ও রাষ্ট্রপতি প্রয়োজন মনে করলে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই এই নিয়োগ বাতিল করতে পারবেন বলে আদেশে বলা হয়েছে।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় বিল জাতীয় সংসদে পাসের পর ওই বছরের ৮ মে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবন ও দর্শন, সাহিত্য ও সংগীত এবং বিশ্ব সংস্কৃতি বিষয়ে অধ্যায়ন ও গবেষণা, কলা, সংগীত ও নৃত্য, চারুকলা, নাট্যকলা, সামাজিক বিজ্ঞান, কৃষি ও সমবায়, ব্যবসা প্রশাসন, আইন, বিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে শিক্ষাদান ও গবেষণা হবে।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মের সার্ধশত বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে স্বাক্ষরিত যৌথ ইশতেহারে বাংলাদেশে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের কথা বলা হয়।

এর ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালের ৫ ডিসেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে চিঠি দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনকে (ইউজিসি) রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সরকারি চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। দেশের ৩৫তম পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো স্থাপন করা হচ্ছে। বাংলাদেশ ও ভারত সরকার যৌথভাবে এর অর্থায়ন করছে।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তার বাবার জমিদারির দেখাশোনা করতে ১৮৯০ সালে শাহজাদপুরে আসেন। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রিয় স্থানগুলোর মধ্য অন্যতম ছিল শাহজাদপুর।

সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার পুরো শহর জুড়েই রয়েছে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত নানা নিদর্শন। শাহজাদপুরের অপরূপ প্রকৃতিক নৈসর্গিক পরিবেশ কবিগুরুকে দারুণভাবে আকৃষ্ট করেছিল।

এ জন্য তিনিই ১৮৯০ সালে জমিদারী দেখাশোনা করতে শাহজাদপুরে আসেন। ৭ বছর এখানে থেকে তিনি অসংখ্য কবিতা, ছোটগল্প, নাটক ও সংগীত রচনার মধ্য দিয়ে তার সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেন।

এসজে/ ১১ জুন ২০১৭