নিটারে বসন্তবরণ ও পিঠা উৎসবের আমেজে মুখরিত ক্যাম্পাস


রিফাতুর রহমান
Published: 2018-03-04 05:09:03 BdST | Updated: 2019-10-15 06:02:08 BdST

বসন্ত তবে এসেই গেল! প্রকৃতি তার রূপ পরিবর্তন করে নিজেকে সাজিয়ে নিয়েছে অপরূপ সাঁজে। গাছে গাছে উঁকি দিচ্ছে সবুজ-কচি পাতা আর নানা রঙের ফুল। সেই সাথে দখিনা বাতাসে ভেসে আসে কুকিলের সুর, আমের মুকুলের গন্ধ এবং কৃষ্ণচূড়ার ডালে আগুন রাঙ্গা ফুলসহ নানা ফুলের সুবাস।

ঋতুরাজ বসন্ত দুয়ারে দাঁড়িয়ে; তাই বসন্তকে বরণ করে নিতে কার্পণ্য করেনি জাতীয় বস্ত্র প্রকৌশল ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (নিটার)। ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ নানা সাংস্কৃতিক আয়োজনের মাধ্যমে সাজানো হয়েছিল বসন্ত উৎসব। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে শুভ উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। এসময় তিনি সকলের উদ্দেশ্যে উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন এবং শিক্ষার্থীদের পিঠার স্টলগুলো ঘুরে দেখেন।

সেই সাথে তিনি বাঙ্গালির প্রতিটি উৎসব সবাই সম্মিলিত ভাবে পালন করার আশা ব্যক্ত করেন। গান, কবিতা, নৃত্য ও পুঁথিপাঠে সাজানো হয়েছিল বসন্ত উৎসব। পিঠা উৎসবের আমেজে ও প্রানোচ্ছল ছিল নিটার প্রাঙ্গণ।

বসন্ত বরণের পাশাপাশি বাংলার ঐহিহ্যগুলো বাচিয়ে রাখায় প্রয়াস হিসেবেই পিঠা উৎসবের আয়োজন। বিভিন্ন ব্যাচের ছাত্র-ছাত্রীদের বসন্তরাজে পিঠার সাজে, মোরগ সংসার, পিঠাঞ্জলি, কুহুতান, ঝাল জামাই, বগুড়ার পুন্ড্র পিঠাঙ্গন, শিরোনামহীন, বসন্তদুত, ৭ টাকা, বসন্ত বিলাস নামে মোট ১১টি স্টল বসানো হয়েছিল।

বিভিন্ন স্টলে ছিল শিক্ষার্থীদের হাতে বানানো নকশী পিঠা, দুধ চিতই, পাঠি সাপটা, মোরগ সংসার, মোরগ জামাই, নাটোরের কাচাগোল্লা, ডাল পিঠা, মিল্কি বরফি, সিদ্ধ পুলি পিঠা,তেল চিতুই, দুধ পুলি, সেমাই পিঠা,হালকা, রংপুরের ঝাল পিঠা,জামাই মোরগ, পাকান পিঠা সহ নানা পিঠার সমাহার পিঠার স্বাদে মুগ্ধ শিক্ষক শিক্ষিকাসহ সকেলেই। সেরা স্টল হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে ‘বসন্তরাজে পিঠার সাজে’ পিঠাঘর।

এসএম/ ০৪ মার্চ ২০১৮