জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী জুয়েল: নৌকার পক্ষে তরুণদের কাজ করার আহবান


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-09-30 00:28:54 BdST | Updated: 2018-10-17 03:55:28 BdST

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হলেন খাইরুল হাসান জুয়েল। তিনি আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। খাইরুল হাসান জুয়েল নিউইর্য়কে প্রধানমন্ত্রীর সাথে বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সংবর্ধণায় অংশ নেন তারুণ্য নির্ভর নেতা জুয়েল। এছাড়া, প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র সফর উপলক্ষে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগকে সংগঠিত করার জন্যও ভূমিকা রাখেন জুয়েল। এসময় নিউইর্য়ক শহরে লিফলেটও বিতরণ করতে দেখা যায়।

খাইরুল হাসান জুয়েল আওয়ামী রাজনীতির একজন তরুণ ব্যবসায়ী ও উদ্যোগক্তা হিসেবে জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে যোগ দেন। খাইরুল হাসান জুয়েল গত চার দলীয় জোট সরকারের আমলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি চারদলীয় জোট সরকারের নানামুখী নির্যাতনের শিকার হয়েও হল ও ক্যাম্পাসে অবস্থান করে ছাত্রলীগকে সুসংগঠিত করার জন্য শক্ত অবস্থান পালন করেন।

.

বিএনপি-জামাতের সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তখন ছাত্রলীগকে সারা বাংলাদেশে শক্তিশালী ও উজ্জীবিত করার জন্য জোড়ালো ভূমিকা পালন করেন। জুয়েল বিগত ১/১১ সরকারের সময় সেনা বাহিনীর হাতে আটক হয়ে দুঃসহ নির্যাতনের শিকার হয়ে দীর্ঘ এক বছরের বেশি সময় কারাবাস করেন। সেসব নির্যাতনের ক্ষত তিনি আজও বহন করছেন। উল্লেখ, তৎকালীন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটনের সাথে আটক হন। খাইরুল হাসান জুয়েল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এনভারমেন্ট ও আর্থ সাইন্স বিভাগ থেকে অনার্স মাস্টার্স শেষ করেন। এর আগে ২০১১ সালে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির আমন্ত্রণে উচ্চতর রাজনৈতিক সেমিনারে যোগ দিতে চীন সফর করেছেন। জুয়েল মাদারীপুরের আওয়ামী লীগের রাজনীতি সাথেও যুক্ত। প্রতিনিয়ত এলাকার নেতা-কর্মীদের সাথে যোগাযোগ রাখেন। নেতা-কর্মীরাও তার সাথে নিয়মিত সাক্ষাত করেন।

.

জুয়েল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল কেন্দ্রিক রাজনীতি করায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। সিটি করপোরেশন দক্ষিণের ২১ নং ওয়ার্ডে জুয়েলের শক্তিশালী সংগঠনিক অবস্থান রয়েছে। তিনি বর্তমানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের রাজশাহী বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি সুনামের সাথে রাজশাহী বিভাগের দায়িত্ব পালন করছেন। নিউইর্য়ক থেকে টেলিফোনে তিনি জানান, জাতিসংঘের এই সফর আগামি দিনের রাজনৈতিক কর্মকান্ডে ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে সহায়ক হবে। তিনি মনে করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার লক্ষে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার কোনো বিকল্প নেই। সৎ, মেধাবী, সাংগঠনিক ভাবে শক্তিশালী তরুণ নেতারা আগামী দিনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিবেন। আজীবন যেন মানুষের জন্য কাজ করে যেতে পারেন সে জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন। খাইরুল হাসান জুয়েল নানা রকম সামাজিক কার্যক্রম করে থাকেন। দুঃস্থ, অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করেন। তিনি একজন প্রচারবিমুখ নেতা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।