বুয়েট আন্দোলনে শিবির-ছাত্রদল সক্রিয়: তথ্যমন্ত্রী


টাইমস ডেস্ক
Published: 2019-10-13 22:07:31 BdST | Updated: 2019-11-18 00:51:52 BdST

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার পর আন্দোলনে ছাত্রশিবির ও ছাত্রদল সক্রিয় বলে মনে করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

রোববার (১৩ অক্টোবর) সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বেনামে শিবির-ছাত্রদল সক্রিয় হয়ে বিষয়টিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত। এছাড়াও তিনি বলেন, ভারত বিরোধিতার পুরনো ট্যাবলেট কোনো কাজে দেবে না।

বুয়েটে ছাত্র হত্যার ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দনীয়, ন্যক্কারজনক ও নৃশংস উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক বলেন, সরকার এ ব্যাপারে ত্বরিত ব্যবস্থা নিয়েছে। এ পর্যন্ত ১৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আন্দোলনে কারা আছে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রশ্ন হচ্ছে দাবি-দাওয়া মেনে নেয়ার পরও কেন আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা?

আমরা লক্ষ্য করছি, ছাত্রদের আবেগ-অনুভ‚তি পুঁজি করে একটি মহল বিশেষত বিএনপি ও তাদের মিত্ররা, দেশ অশান্ত করার দূরভিসন্ধিতে লিপ্ত রয়েছে। যে কারণে দাবি মেনে নেয়ার পরও এ আন্দোলন। আমরা লক্ষ্য করছি শিবির সক্রিয় হয়েছে, ছাত্রদল সক্রিয় হয়েছে। স্বনামে নয় বেনামে সক্রিয় হয়েছে, সাধারণ ছাত্রদের মধ্যে ঢুকে পড়েছে। ফাহাদ হত্যাকে পুঁজি করে যাতে কেউ রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিল করতে না পারে, সেজন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে তথ্যমন্ত্রী।

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ নিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সাময়িকভাবে যেটি বন্ধ করেছে, সেটি পরিস্থিতি উত্তরণে সহায়ক হবে বলে মনে করি। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকলে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। তবে এটি একান্তই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ব্যাপার।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের বিভিন্ন বিষয়ে বিএনপির বক্তব্যের সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির রাজনীতির মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে ভারত বিরোধিতা। এ পুরনো ট্যাবলেট আর কাজ করবে না। ’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভারত সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের স্বার্থে, বাংলাদেশের অর্থনীতির স্বার্থে অনেকগুলো সমঝোতা স্মারক এবং চুক্তি করেছেন। প্রত্যেকটি চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক, বাংলাদেশের স্বার্থ শুধু সংরক্ষণ নয়; বরং ভারতের কাছ থেকে আমরা স্বার্থ আদায় করেছি।

হাছান মাহমুদ বলেন, কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে রাডার নিয়ে ভুল ও অসত্য সংবাদ পরিবেশিত হয়েছে। ভারত ২০টি রাডার কেনার জন্য অনুদান দেবে এবং এককালীন টাকা দেবে। যেটি আমাদের ফেরত দিতে হবে না। সেই অনুদান থেকে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড ২০টি রাডার কিনবে। কারণ কোস্টগার্ডের ভালো রাডার সিস্টেম নেই। বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় থাইল্যান্ড, মিয়ানমারের জাহাজ এসে মাছ চুরি করে নিয়ে যায়। এ রাডার সিস্টেমের মালিকানা এবং পরিচালনা বাংলাদেশই করবে। এটি নিয়ে যে বক্তব্য দেয়া হচ্ছে সেটি অত্যন্ত অমূলক।

ভারতকে ফেনী নদীর পানি দেয়া নিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভারত ছোট্ট শহর সাবরুমে খাবার পানির জন্য পুরো প্রবাহের ২০০ ভাগের ১ ভাগ পানি নেবে। ভারত আগেও পানি নিত, অবৈধভাবে। এখন বরং একটি ফ্রেমওয়ার্কের মধ্যে আনা হয়েছে। সবই অর্থনীতির স্বার্থে করা হয়েছে।

এলপিজি কীভাবে হয় প্রশ্ন রেখে তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে সাত থেকে সাড়ে সাত লাখ টন এলপিজি আমদানি হয়। বাল্কে আমদানি হয়, যেগুলো আমাদের দেশে বেসরকারিভাবে কয়েকটি প্ল্যান্ট বোতলজাত করে এবং সারা দেশে সরবরাহ করা হয়। আরেকটি মাধ্যম হচ্ছে আমরা যে ক্রুডওয়েল আমদানি করি, যেটি চট্টগ্রামে পরিশোধিত করা হয়। সেখান থেকে উপজাত হিসেবে নেপতা (ন্যাপথলিন) হয় আর এলপিজি হয়। যে এলপিজি আমদানি করছি, সেটাকে ভ্যালু অ্যাড করে আমরা সেটি রফতানি করব। এটি তো আমাদের অর্থনীতির জন্য সহায়ক। এক্সপোর্ট বাস্কেটে আরেকটি পণ্য যোগ হল।

খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ বলে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রিজভী সাহেবরা তো প্রতিনিয়তই বলেন, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খুব খারাপ। বঙ্গবন্ধুর পরিচালক ডাক্তার, না রিজভী সাহেবরা ডাক্তার, এটা বোঝা মুশকিল। রিজভী সাহেবদের কথায় মনে হয়, উনারাই বিশেষজ্ঞ ডাক্তার।

আরএস/ ১৩ অক্টোবর ২০১৯