তারেককে এমফিল ভর্তি হতে বললেন জাফরুল্লাহ


Dhaka
Published: 2019-12-31 04:12:14 BdST | Updated: 2020-09-24 07:30:34 BdST

বিএনপিকে পরিচালনার জন্য দেশে যারা আছে, তাদের দায়িত্ব দিয়ে দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানকে দুই বছরের জন্য এমফিল অথবা মাস্টার্স করার পরামর্শ দিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার কোন পথে?’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তৃতাকালে তিনি এ পরামর্শ দেন।

ন্যাশনাল ল’ইয়ার্স কাউন্সিল (এনএলসি) আয়োজিত সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহছানুল হক মিলন ও সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আপনারা এখানে অধিকাংশ বিএনপির লোকজন আছেন। আপনাদের একটা কথা বলি। আপনারা ওহি দিয়ে পরিচালিত হচ্ছেন। এটাই হলো এ জাতির দুর্ভাগ্য। আপনাদের ওহি আসে লন্ডন থেকে, স্কাইপের মাধ্যমে। আজকে আপনারা এটা ছাড়েন। এখানে যারা আছেন- রনি, মিলন। এমন চৌকস, তাদের মতো আরও কিছু আছেন, তাদের দায়িত্ব দেন।’

লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান সম্পর্কে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘তারেক আমার খুব প্রিয় মানুষ। ছোটবেলা থেকেই আমি দেখেছি। আপনারা অনেকে দেখেননি। আমি দেখেছি। সেজন্য বলি, এত দূর থেকে বসে তোমার মায়ের (বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া) মুক্তি ঘটাতে পারবে না। প্লিজ দু’বছর ওখানে একটা মাস্টার্স বা এমফিল করো। এখানে (বাংলাদেশে) যারা আছেন, তাদের কাউকে দায়িত্ব দিয়ে দাও।’


বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের বিষয়ে ঐক্যফ্রন্টের এ নেতা বলেন, ‘এখানে স্ট্যান্ডিং কমিটির লোকদের হাত-পা নড়ে না, এদের একটু বাড়ি পাঠাও। উনারা বাড়িতে বসে... করুক। দু’ঘণ্টা দাঁড়াতে পারে না, এদের দিয়ে হবে না। আমাদের সময় শেষ হয়ে আসছে। আমাদের দিয়ে হবে না।’

তারেক রহমানের উদ্দেশে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘ওহি দেয়া বন্ধ করো, স্কাইপেতে বার্তা দেয়া বন্ধ করো। বিশ্বাস করো, তাহলে এরা (অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেতাকর্মীরা) তোমাকে জয়যুক্ত করবে এবং তোমার মাকে মুক্ত করবে। এটা অবশ্যই সত্য কথা, খালেদা জিয়ার মুক্তি না হলে গণতন্ত্রের মুক্তি প্রায় অসম্ভব। তবে তাকে মুক্ত করার দায়িত্ব আমাদেরই। হলে বসে বক্তৃতা দিয়ে নয়, মাঠে যেতে হবে।’

এদিকে ৩০ ডিসেম্বর উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম কালো পতাকা নিয়ে এক পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করেছে। সুপ্রিম কোর্ট বারের সামনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ফোরামের আহ্বায়ক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন, সদস্য সচিব ফজলুর রহমান, তৈমুর আলম খন্দকার ও ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।