কওমি মাদরাসার ছাত্ররা বিসিএস দিতে পারে, এমন শিক্ষা চান জিএম কাদের


Dhaka
Published: 2020-07-29 13:23:05 BdST | Updated: 2020-08-05 16:01:18 BdST

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের বলেছেন, ‘মাদরাসায় লেখাপাড়া করে ছাত্ররা এখন চাকরিসহ সব ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারছে। তাই কওমিসহ সব মাদরাসা শিক্ষাকে যুগোপযোগী করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘কওমি মাদরাসার ছাত্ররা যেন বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিতে পারে, সেই মানের শিক্ষাব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।’

মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের অফিসে ইত্তোফাকুল মুসলিমিনের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

আলেমদের কথা সাধারণ মানুষ অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে অনুধাবন করেন উল্লেখ করে তিনি আলেম সমাজকে জাতীয় পার্টির পাশে থাকতে অনুরোধ জানান।

কোরবানির পশুর চামড়ার দাম প্রসঙ্গে জি এম কাদের বলেন, ‘বাজার উন্মুক্ত থাকলে কাঁচা চামড়ার প্রকৃত মূল্য পাওয়া যায়। এতে কোরবানির ঈদে হতদরিদ্র ও এতিমরা উপকৃত হবে।’

তিনি বলেন, সরকারিভাবে এবার কাঁচা চামড়ার দর ঘোষণা করা হয়েছে। এই দর মাঠপর্যায়ে বাস্তবায়িত হলেও মোটামুটি ভালো দাম পাবে বিক্রেতারা। আগামী বছর থেকে কাঁচা চামড়া রফতানির অনুমতি থাকলে বিদেশিরাও চামড়া কিনতে আসবে, এতে কাঁচা চামড়ার বাজারে প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হবে।

এ সময় জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, জাতীয় পার্টি শুরু থেকেই ধর্মীয় অনুশাসনকে প্রাধান্য দিয়ে রাজনীতি করে আসছে। ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণা এবং সংবিধানে বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম সংযুক্ত করে পল্লীবন্ধু ইসলামের সেবায় ব্যাপক কাজ করেছেন। মসজিদ ও মাদরাসার বিদ্যুৎ ও পানির বিল মওকুফ করেছিলেন। পল্লীবন্ধু এরশাদ উপজেলা পদ্ধতি প্রবর্তন করেছিলেন বলেই আজ বন্যায় একটি মানুষও না খেয়ে মারা যাচ্ছে না। তিনি জাতীয় পার্টিকে আরও শক্তিশালী করতে আলেম-ওলামাদের প্রতি আহ্বান জানান।