গ্রিন ইউনিভার্সিটির ক্লাসে পূর্ণিমা-ফেরদৌস (ভিডিও)


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2017-12-12 18:29:21 BdST | Updated: 2018-01-17 14:51:09 BdST

ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন পূর্ণিমা। অভিনয়ের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিনয়ের ক্লাসেও এখন নিয়মিত তিনি। সম্প্রতি সে চিত্রই দেখা গেলো রাজধানীর শেওড়াপাড়াস্থ গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে সম্প্রতি চালু হওয়া ‘সার্টিফিকেট ইন এ্যাকটিং কোর্সে’র ক্লাসে অভিনয় দেখানোর পাশাপাশি প্র্যাকটিক্যাল অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন তিনি। শুধু তিনিই নন, সঙ্গে আছেন বড় পর্দার অন্যতম জনপ্রিয় নায়ক ফেরদৌসও। তারা ছাড়াও কোর্সটিতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আনন জামান, চলচিত্র নির্মাতা জাকির হোসেন রাজু, অভিনেতা জয়ন্ত চট্টাপাধ্যায়, নির্দেশক ও অভিনেতা গাজী রাকায়েত বিভিন্ন বিষয়ে নিয়মিত ক্লাস নিচ্ছেন।

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা বিনিময়কালে পূর্ণিমা বলেন, অভিনয় হলো হৃদয়ের ভেতর থেকে বের করা অভিব্যক্তি। অভিনয় করতে হলে সবার আগে সংশ্লিষ্ট পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে হবে। তিনি বলেন, মিডিয়াতে প্রতিভাবান অভিনেতা উপহার দেয়ার লক্ষ্যেই এ কোর্সের আয়োজন। এর মাধ্যমে নতুনদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মিডিয়া জগতে প্রবেশের সুযোগ করে দেয়া হবে।

ক্লাসে অভিনয় শেখানোর পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের খুনটুসিতে মেতে ওঠেন পূর্ণিমা ও ফেরদৌস। শুধু তাই নয়, শিক্ষার্থীদের অনুরোধে ’হঠাৎ বৃষ্টি’ ছবির একদিন স্বপ্নের দিন, বেদনার বর্ণ বিহীন/এ জীবনে যেন আসে এমনি স্বপ্নের দিন’ গান গেয়েও শোনার জনপ্রিয় এই দুই তারকা।

এর আগে চলতি বছরের ১ আগস্ট একঝাঁক পেশাদার অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতাদের উদ্যোগে গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশে ‘সার্টিফিকেট ইন এ্যাকটিং’ কোর্স চালু হয়েছে। তিন মাস মেয়াদি এই কোর্সের শুরুতে ‘বেসিক অ্যাক্টিং’, পরে ‘অ্যাক্টিং ইন থিয়েটার, টেলিভিশন ও সিনেমা’ এবং সবশেষে অভিনয়ের ওপর ‘প্র্যাকটিক্যাল কোর্স’ করানো হবে।

উল্লেখ্য, ‘এ গ্লোবাল হায়ার এডুকেশন সেন্টার অব এক্সিলেন্স’ স্লোগানে ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠা হয় গ্রিন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। ইউএস-বাংলা গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসহ ১০টি প্রতিষ্ঠান তথা ইউএস-বাংলা অ্যাসেট, ইউএস-বাংলা লেদার, হাইটেক মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন, ইউএস-বাংলা ফুড, অ্যাগ্রো, ফ্যাশন, মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং ইউএস-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালসে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা চাকরির সুযোগ পাবেন। শুধু তাই নয়, যেসব গ্রাজুয়েটরা সাফল্যের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়ে ইংরেজি ও তথ্য-প্রযুক্তিতে দক্ষ হবেন, তাদের জন্য নিশ্চিত চাকরির ঘোষণা দেয়া হয়েছে ।

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে আকর্ষণীয় স্কলারশিপে স্প্রিং সেমিস্টার-২০১৮-এর ভর্তি চলছে। শিক্ষার্থীরা যেকোনো বিষয়ে ভর্তি হলে স্কলারশিপের অন্তর্ভূক্ত হবেন। এর আওতায় মেরিট, ছাত্রী, ভাই-বোন, স্বামী-স্ত্রী, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, মুক্তিযোদ্ধা ও খেলোয়াড় কোটায় ভর্তিচ্ছুরা সর্বোচ্চ ১০০% পর্যন্ত স্কলারশীপ পাবে। কর্পোরেট ও গ্রুপভিত্তিক ভর্তি হলে রয়েছে অতিরিক্ত ওয়েভার। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ব্যাচেলর ও মাস্টার্স পর্যায়ের প্রোগামগুলোর মধ্যে রয়েছে বিবিএ, এমবিএ, ইএমবিএ, এলএলবি, এলএলএম, সমাজবিজ্ঞান, সিএসই, ইইই, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইংলিশ এবং ফিল্ম, টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া।

এমএসএল 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।