৫৭ ধারায় কারাগারে চবি শিক্ষক


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-09-24 23:37:18 BdST | Updated: 2018-10-16 21:36:01 BdST

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে ছাত্রলীগের নেতার মামলায় কারাগারে গেলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাইদুল ইসলাম। জামিনের মেয়াদ শেষে আজ আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন।

মাইদুলের আইনজীবী বুলন ভৌমিক বলেন, মামলায় আজ শুনানির দিন ছিল। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ইসমাইল হোসেন শুনানি শেষে জামিন বাড়ানোর আবেদন খারিজ করে তাকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে গত ২৩ জুলাই চট্টগ্রামের হাটহাজারি থানায় বিতর্কিত তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলাটি করেছিলেন চবি শাখা ছাত্রলীগের নেতা মো. ইফতেখার উদ্দিন আয়াজ।

এই মামলায় গত ৬ আগস্ট হাইকোর্ট আট সপ্তাহের জন্য মাইদুলকে জামিন দিয়েছিলেন। সেই জামিনের মেয়াদ আজ শেষ হয়েছে। জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন খারিজ করে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন।

মাইদুল ইসলাম এর আগে বলেছিলেন, কোটা সংস্কারের দাবিতে ছাত্র আন্দোলনে হামলার প্রতিবাদে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাকে হুমকি দিচ্ছিল। এ কারণে বেশ কিছুদিন ক্যাম্পাসেও যেতে পারেননি তিনি।

গত ১৬ জুলাই তিনি বলেছিলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর হামলার প্রতিবাদ করেছিলেন তিনি। তার ভাষায়, ‘শিক্ষার্থীদের ওপর অমানবিক হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে ফেসবুকে অল্প কিছু কথা লিখেছিলাম। ফেসবুকে লিখবো এই সিদ্ধান্তটা আমার। ছাত্রলীগের কারও এতে বাধা দেওয়ার কোনো অধিকার নেই।’

আর ছাত্রলীগের দাবি ছিল, ওই শিক্ষক ফেসবুকে সরকারকে নিয়ে ‘নেতিবাচক স্ট্যাটাস’ ও ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করতে ছাত্র-শিক্ষকদের উস্কানি দিচ্ছিলেন। শিক্ষকদের দিক থেকে এ ধরনের কোনো কর্মকাণ্ড তারা সহ্য করবেন না বলেও জানিয়েছিলেন চবি ছাত্রলীগের এক নেতা। এর পরই তাদের পক্ষ থেকে একজন মাইদুলের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।